× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৮ অক্টোবর ২০২১, সোমবার , ৩ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

‘পাকিস্তান ক্রিকেটকে খুন করেছে নিউজিল্যান্ড’

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, শনিবার

পাকিস্তানে সবে বড় দলগুলোর পা পড়তে শুরু করেছে। জিম্বাবুয়ে, শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, বাংলাদেশের পর দেশটিতে সফর করেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। ১৮ বছর পর নিউজিল্যান্ড যখন পাকিস্তানে পা রাখলো দেশটির ক্রিকেটাঙ্গনে তখন স্বস্তির সুবাতাস। গতকাল কিউইদের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরুর আগমুহূর্তে নিরাপত্তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে সফর বাতিল করে দেয় নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট (এনজেসি)। হতাশা আর ক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে পাকিস্তানের ক্রিকেটাঙ্গনে। পাকিস্তানের সাবেক গতি তারকা শোয়েব আখতার ধুয়ে দিয়েছেন নিউজিল্যান্ড দলকে।
অক্টোবরে পাকিস্তান সফরে আসার কথা ইংল্যান্ডের। অনেক দেন-দরবারের পর ইংল্যান্ডকে রাজি করিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)। নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তুলে নিউজিল্যান্ড সফর বাতিল করায় সংশয়ে ইংল্যান্ডের পাকিস্তান সফর।
পাঁচটি টেস্ট খেলুড়ে দল সফলভাবে পাকিস্তান সফর করেছে। পাকিস্তান সুপার লীগও (পিএসএল) নিজ দেশে আয়োজন করে পিসিবি। পিএসএলে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড থেকে শুরু করে প্রায় সব দেশেরই ক্রিকেটারদের অংশগ্রহণ ছিল। ক্ষুব্ধ শোয়েব আখতার প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন নিজের ইউটিউব চ্যানেলে। সাবেক এই পেসার বলেন, ‘পাকিস্তান ক্রিকেটকে খুন করল নিউজিল্যান্ড। নিউজিল্যান্ড দল ইসলামাবাদে শেষ চার পাঁচ দিন ধরেই আছে, আর তাদের নিখুঁত নিরাপত্তা ব্যবস্থায় রাখা হয়েছে। কিন্তু হঠাৎ করে তারা গোয়েন্দাদের তথ্য পেয়ে এই সিদ্ধান্ত নিয়ে নিলো। গোয়েন্দাদের এমন তথ্য আসবেই। কিন্তু আপনি পাকিস্তানকে বিশ্বের অন্যতম নিরাপদ স্বর্গগুলোর একটা হিসেবে বিশ্বাস করতে পারেন। আমাদের আইএসআই ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো এ দেশে শান্তি বজায় রাখার জন্য নিরন্তর চেষ্টা করে যাচ্ছে।’
নিউজিল্যান্ডের এমন সিদ্ধান্তে পাকিস্তানের নিরাপত্তা প্রশ্নবিদ্ধ হলো বলে মনে করেন শোয়েব। তিনি বলেন, ‘আমাদের গোয়েন্দা বিভাগকে তারা বিশ্বাস করতে পারত, তাহলে এভাবে আমাদের অপমানিত হতে হতো না। কিংবা পাকিস্তানে আসার আগেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হলে ভালো হতো। এভাবে সফর শেষ না করে চলে যাওয়াটা ভাবমূর্তি খারাপ করবে পাকিস্তানের। পৃথিবীর সব জায়গায় নিরাপত্তার শঙ্কা আছে, আর তাই আপনারা আমাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে সম্মান জানাতে পারতেন।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর