× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৮ অক্টোবর ২০২১, বৃহস্পতিবার , ১৩ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

রাতের আঁধারে ঘর তুলে জমি দখল

বাংলারজমিন

আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, শনিবার

বরগুনার আমতলীতে রাতের আঁধারে ঘর তুলে জমি দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। দখলে প্রতিবাদ করায় পিটিয়ে মা মাজেদা বেগম (৫৫)কে আহত করেছে ভাই ও ভাইয়ের ছেলেরা। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল ভোর ৪টার দিকে উপজেলার কুকুয়া ইউনিয়নের রায়বালা গ্রামে। ভুক্তভোগীর অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার কুকুয়া ইউনিয়নের রায়বালা গ্রামের মৃত আদম আলী গাজী জীবদ্দশায় ১৯৭৮ সালে তার স্ত্রী কদভানুকে ৩০২, ৩০৪ ও ৩১০নং দাগ থেকে ৪১ শতাংশ জমি সাব কবলা মূলে দান করেন। ওই জমি থেকে ১৯৯৬ সালে কদভানু তার পুত্র মো. হানিফ গাজীর কাছে ৩০২ ও ৩০৪নং দাগ থেকে ২০ শতাংশ জমি সাব কবলা মূলে মায়ের ক্রয়কৃত জমি বিক্রি করেন। এরপর পুত্র হানিফ গাজী ১৯৯৮ সালে তার ক্রয়কৃত সম্পত্তি থেকে তার ভগ্নিপতি জয়নাল হাওলাদারের কাছে ওই দু’টি দাগের সমুদয় জমি বিক্রি করেন। ওই দুই দাগের জমির মধ্যে ৩০২নং দাগের জমিতে এক বছর পূর্বে জয়নাল হাওলাদারের পুত্র রিয়াজ হাওলাদার বসতঘর নির্মাণ ও পুকুর খনন করে পরিবার-পরিজন নিয়ে বসবাস করে আসছে। গতকাল ভোর ৪টার দিকে ওই জমিতে দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিসোঁটা নিয়ে হানিফ গাজীর নেতৃত্বে মোস্তফা গাজী, আনোয়ার গাজী, রুহুল আমিন গাজী, শাহাবুদ্দিন গাজী, ইসরাইল মৃধা, জুয়েল শিকদার, শাহ আলমসহ ১৫-২০ সন্ত্রাসী রিয়াজ হাওলাদারের বসতঘরের সামনের খালি জায়গায় একটি ঘর নির্মাণ করেন।
এতে রিয়াজ হাওলাদারের মা মাজেদা বেগম ভাই ইমরান, ফিরোজ, ফিরোজের স্ত্রী নাছিমা বাধা দিলে তাদেরকে পিটিয়ে আহত করে। এ সময় রিয়াজ হাওলাদারের মা ও ভাইয়ের স্ত্রীর শ্লীলতাহানি করে বলে রিয়াজের মা অভিযোগ করেন। এ সময় স্বজনরা রিয়াজ হাওলাদারের মা মাজেদা বেগমকে উদ্ধার করে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করেন। আহত মা মাজেদা বেগম বলেন, আমার ভাই ও ভাইয়ের ছেলেরা রাতের আঁধারে আমার স্বামীর ক্রয়কৃত জমিতে ঘর তুলে দখল করে। আমি এর প্রতিবাদ করলে তারা আমাকে ও আমার পুত্রবধূকে মেরে আহত করে আমার শ্লীলতাহানি ঘটায়। পুত্র রিয়াজ হাওলাদার বলেন, আমার মামা হানিফ গাজীর নেতৃত্বে ১৫-২০ জনের সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে অস্ত্র ও লাঠিসোঁটা নিয়ে আমাদের ক্রয়ক্রত জমি দখল করে সেখানে ঘর নির্মাণ করেছেন। স্থানীয় স্কুল শিক্ষক আব্দুল মান্নান বলেন, অভিযুক্তরা রাতের আঁধারে ঘর তুলে জয়নাল হাওলাদারের ভোগদখলীয় জমি দখল করছে। অভিযুক্ত হানিফ গাজী রাতের আঁধারে ঘর তোলার কথা স্বীকার করে বলেন, আমি আমার জায়গায় ঘর তুলেছি। রাতে তুলছেন কেন? এমন প্রশ্নের কোনো উত্তর দেয়নি। আমতলী থানার পরিদর্শক (ওসি) মো. শাহ আলম মুঠোফোনে বলেন, এ বিষয়ে কোনো অভিযোগ  পাইনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর