× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৮ অক্টোবর ২০২১, সোমবার , ৩ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

সুধারামে ডাকাতির স্বর্ণ ভাগাভাগি নিয়ে গোলাগুলি

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, নোয়াখালী থেকে
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, রবিবার

সুধারামে প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতির স্বর্ণ ভাগাভাগি নিয়ে গোলাগুলি, আন্তঃজেলা ডাকাত গুলিবিদ্ধ আসামিরা ধরা পড়েনি। পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, নোয়াখালী সদর উপজেলায় ডাকাতির স্বর্ণ ভাগাভাগি নিয়ে নিজেদের মধ্যে প্রথমে বাকবিতণ্ডা-হাতাহাতি ও এক পর্যায়ে গোলাগুলির ঘটনায় মো. রুবেল (২৭) নামের এক ডাকাত গুলিবিদ্ধ হয়েছে। বুধবার গভীর রাতে উপজেলার নোয়ান্নই ইউনিয়নের আতাশপুর গ্রামের মিলন মিয়ার নতুন বাড়িতে ডাকাতি পরবর্তী রাত ৩টার দিকে দাদপুর ইউনিয়নের হাকিমপুর ব্রিকস ফিল্ড সংলগ্ন এলাকা থেকে গুলিবিদ্ধ রুবেলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গুলিবিদ্ধ মো. রুবেল দাদপুর ইউনিয়নের দাদপুর গ্রামের মো. হানিফের ছেলে। তার বিরুদ্ধে থানায় একাধিক অস্ত্র ও মাদক মামলা রয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। ভুক্তভোগী পরিবারের সদস্য আমেনা বেগম শিউলি বলেন, বুধবার রাত ২টার দিকে উপজেলার নোয়ান্নই ইউনিয়নের আতাশপুর গ্রামের প্রবাসী মিলন মিয়ার নতুন বাড়ির ঘরের দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে ঘরের সবাইকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে স্বর্ণালঙ্কার ও মালামাল লুট করে নেয়। এ সময় একজন ডাকাত ডাকাতি হওয়া স্বর্ণালঙ্কার তার কাছে দিতে বললে তার সঙ্গে অন্য ডাকাতদের বাকবিতণ্ডা শুরুর এক পর্যায়ে হাতাহাতি হয়। এতে স্বর্ণালঙ্কার থাকা ডাকাতের মুখোশ খুলে যায়।
এসময় পুনরায় মুখোশ পরে স্বর্ণালঙ্কার নিয়ে ওই ডাকাত ঘর থেকে বাইরে যাওয়ার সময় অপর ডাকাতরা তাকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়লে সে গুলিবিদ্ধ হয়। পরে অপর ডাকাতরা ডাকাতি হওয়া মালামালসহ তাকে নিয়ে চলে যায়। পরবর্তীতে দাদপুর ইউনিয়নের হাকিমপুর ব্রিকস ফিল্ড সংলগ্ন এলাকা থেকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ডাকাত রুবেলকে স্থানীয় এলাকাবাসী উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার সৈয়দ মহিউদ্দিন আবদুল আজিম মানবজমিনকে বলেন, রুবেল নামের এক গুলিবিদ্ধ যুবককে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আনা হয়। তার চোখে-মুখে ও পেটে ছররা গুলি বিদ্ধ হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। সুধারাম মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহেদ উদ্দিন বলেন, প্রবাসীর বাড়িতে ডাকাতির খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। সরজমিন ঘটনার তদন্ত করে জানা গেছে, ডাকাত রুবেলের নেতৃত্বে ওই বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ওসি শাহেদ উদ্দিন বলেন, ডাকাত রুবেলের সঙ্গে সাদ্দাম ও কালামসহ ৪/৫ জন সহযোগী ছিল। তাদের বিরুদ্ধে ভুক্তভোগী আমেনা বেগম শিউলি বাদী হয়ে দস্যুতার অভিযোগে মামলা দায়ের করেছেন। গুলিবিদ্ধ রুবেলের বিরুদ্ধে একাধিক মাদক মামলা রয়েছে। অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ডাকাত দল গ্রেপ্তার হয়নি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর