× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৪ অক্টোবর ২০২১, রবিবার , ৯ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

‘ভালোবেসে ফুটবল খেলে’ প্রতিপক্ষের জালে গোলবন্যা বায়ার্নের

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, রবিবার

চলতি মৌসুমের শুরুর ম্যাচে শুধু এক গোল করেছিল বায়ার্ন মিউনিখ। এরপর থেকে প্রতিপক্ষের জালে করেছে একের পর এক গোল। শেষ ৬ ম্যাচে বায়ার্ন সব প্রতিপক্ষের জালে দিয়েছে অন্তত ৩ গোল। শনিবার বাভারিয়ানরা জার্মান বুন্দেসলিগায় ৭-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে নবাগত বোখুমকে।
এই মৌসুমে ৭ ম্যাচে প্রতিপক্ষের জালে বায়ার্ন দিয়েছে ৩৮ গোল! হজম করেছে মাত্র ৫টি। বোখুমের জালে গোলোৎসবের পর লেয়ন গোরেৎস্কা ‘গোল বন্যার’ রহস্য জানিয়েছেন। এই জার্মান ডিফেন্ডারের মতে, বায়ার্ন শুধু ফুটবল খেলতে ভালোবাসে। বোখুমের গোলমুখে ২৪ শট নিয়ে ১৫টি ছিল লক্ষ্যে। প্রতিপক্ষ ৫ শট নিলেও লক্ষ্যে রাখতে পারেনি একটিও।
গোরেৎস্কা বলেন, ‘আমরা শুধু ফুটবল খেলতেই ভালোবাসি। আমরা শুধু চেয়েছি উন্নতি করতে। নতুন কোচের কৌশলে নিজেদের মানিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে গেছি।’ আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলা বায়ার্নের সহজাত। নতুন কোচ ইউলিয়ান নাগেলসমানের দর্শনেও আক্রমণাত্মক ফুটবলের ছক। লাইপজিগ তার অধীনে আক্রমণাত্মক ফুটবলেই পেয়েছে সাফল্য।
১১ বছর পর বুন্দেসলিগায় ফেরা বোখুমের জালে বায়ার্নের গোলোৎসবের সূচনা ম্যাচের ১৭তম মিনিটে। দারুণ ফ্রিকিকে গোল করেন লেরয় সানে। ২৭তম মিনিটে জসুয়া কিমিখের শট একজনের গায়ে লেগে জালে জড়ায়। পাঁচ মিনিট পর টমাস মুলারের দারুণ থ্রু বল ধরে গতিতে সবাইকে পেছনে ফেলে ডিবক্সে ঢুকে কোনাকুনি শটে ব্যবধান বাড়ান সের্গে জিনাব্রি। আর বিরতির ঠিক আগে বোখুমের ডিফেন্ডার ভাসিলিস নিজেদের জালেই বল জড়ালে ৪-০ ব্যবধানে এগিয়ে ধেকে বিরতিতে যায় বায়ার্ন। ৬১তম মিনিটে কাছ থেকে অনায়াস এক টোকায় স্কোরশিটে নাম লেখান রবার্ট লেভানদোভস্কি। বুন্দেসলিগার প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে টানা ১৩টি হোম ম্যাচে গোল করলেন তিনি। চলতি মৌসুমে সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত সাত ম্যাচ খেলে সবকটিতেই জালের দেখা পেলেন এই পোলিশ তারকা। সাত ম্যাচে তার গোল হলো ১১টি। এর মধ্যে লীগে পাঁচ ম্যাচে ৭টি।
এরপর ৬৫তম মিনিটে কিমিখ আবার ও ৭৯তম মিনিটে এরিক মাক্সিম চুপো-মোটিং গোল করলে বিশাল জয়ের আনন্দে মাঠ ছাড়ে বায়ার্ন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর