× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৮ অক্টোবর ২০২১, সোমবার , ৩ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

নবাবগঞ্জে কারেন্ট জালে সয়লাব

বাংলারজমিন

নবাবগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার

সরকারের বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে কারেন্ট জাল ও চায়না জালে সয়লাব ঢাকার নবাবগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন বিলগুলো। সরকারের নির্দেশনা না মেনে অবৈধ এসব জাল দিয়ে অবাধে শিকার করা হচ্ছে বিলের দেশীয় মাছ। অন্যদিকে, সরকার নিষিদ্ধ এসব কারেন্ট ও চায়না জাল ব্যবহার বন্ধে উপজেলা মৎস্য দপ্তরের নেই কোনো উদ্যোগ। কোনো ধরনের নেই অভিযান। চলতি বছর মৎস্য সপ্তাহে কারেন্ট জালের ওপর কোনো ধরনের অভিযান পরিচালনা করা হয়নি। মৎস্য অধিদপ্তরের ভূমিকা প্রশ্নবিদ্ধ করেছে। জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে মৎস্য অবমুক্ত ছাড়া কোনো কর্মসূচি পালন করেনি মৎস্য অফিস।
জানা গেছে, উপজেলা মৎস্য অফিস থেকে কারেন্ট জাল বন্ধে চলতি মৌসুমে কোনো ধরনের সচেতনতামূলক প্রচারণা এবং অভিযান না থাকায় স্থানীয় জেলেরা মাছ শিকারে সুযোগ পেয়েছে। এমনকি বিলের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে দেয়া হয়েছে ভেসাল জাল, চায়না জাল এবং কারেন্ট জাল।
এতে, বর্ষার পানির সঙ্গে নদী, পদ্মা ও জলাশয়ের মাছগুলো বিলে যাতায়াত করতে পারছে না। তবে এসবের পেছনে রয়েছে উপজেলা মৎস্য দপ্তরের পুরো অবহেলা ও জনসচেতনতার অভাব।
সরজমিন দেখা গেছে, নবাবগঞ্জের প্রতিটি বিল এখন কারেন্ট জাল, চায়না জাল ও ভেসালে ভরপুর। বিলগুলোতে জালের কারণে নামাই যায় না। এরমধ্যে উপজেলার জয়কৃষ্ণপুর, বেড়িবাঁধ স্লুইসগেট, কঠুরী, বারুয়াখালী, শিকারিপাড়া, নয়নশ্রী, নয়নশ্রী বাংলাবাজার, বিলপল্লী, তুইতাইল চক, দিঘীরপাড়, আগলা, টিকরপুর বিল, গালিমপুর, চৌকিঘাটা নদীর পাশে খাল এলাকা, কৈলাইলের শাইলকা, ভাঙ্গাভিটা, দড়িকান্দা, বাহ্রা, চক বাহ্রা, যন্ত্রাইলের ভাওয়ালিয়া, হরিষকুল, কিরঞ্চি, নলগোড়া, বক্সনগর, বড় রাজপাড়া, ছোট বক্সনগরসহ বিভিন্ন এলাকার বিলগুলোতে এখন কারেন্ট জাল ও ভেসাল জাল দিয়ে অবাধে মাছ শিকার করা হচ্ছে। এলাকা ঘুরে জানা যায়, চলতি মৌসুমে এসবের বিষয়ে কোনো অভিযান পরিচালনা করা হয়নি। স্থানীয়দের অভিযোগ মৎস্য কর্মকর্তা এসব বিষয়ে কোনো ধরনের ব্যবস্থা নেয়নি। এ বিষয়ে নবাবগঞ্জ উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা প্রিয়াংকা সাহা জানান, কারেন্ট জাল, চায়না জাল ও ভেসাল জাল সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। এখনো অভিযান করা হয়নি। তবে, দ্রুতই অভিযান শুরু হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর