× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৮ অক্টোবর ২০২১, সোমবার , ৩ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

রূপগঞ্জে ৭০ লাখ টাকার সম্পত্তি আত্মসাৎ হত্যার হুমকি

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, রূপগঞ্জ থেকে
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার

 নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে সাড়ে ৩ শতাংশ জমি কেনার কথা বলে একটি পরিবারের প্রায় ৭০ লাখ টাকা মূল্যের ৩৫ শতাংশ জমি লিখে নিয়েছে একটি প্রতারকচক্র। ঘটনা জানতে পেরে তাদের জিজ্ঞেস করায় উল্টো হত্যার হুমকি দিচ্ছে চক্রটি। সর্বস্ব খুইয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছে পরিবারটি। উপজেলার দাউদপুর ইউনিয়নের খাস কামালকাঠি এলাকায় ঘটেছে এই ঘটনা।
ভুক্তভোগী মনু মিয়া জানান, তিনি দাউদপুর ইউনিয়নের খাস কামালকাঠি এলাকার মৃত তছুরউদ্দিনের ছেলে। পারিবারিক সমস্যার কারণে তারা ৪ ভাই এক বোন মিলে কামালকাঠি মৌজার আর এস- ৫৬৮ ও ৫৬৯ নং খতিয়ানভুক্ত জমির ৫২ শতাংশ থেকে সাড়ে ৩ শতাংশ বিক্রির সিদ্ধান্ত নেয়। পরে গত ২৩শে মে এলাকার খিদুর বক্সের ছেলে কাদির ও খালেকের ছেলে গোলজার হোসেন সাড়ে ৬ লাখ টাকা দামে জমিটি জমিটি কিনতে তাদের ভাইবোনদের রূপগঞ্জ সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে নিয়ে যায়। পরে তারা দাম বুঝে পেয়ে খাস কামালকাঠি এলাকার মিয়া বক্সের ছেলে নজরুল ইসলামের নামে সাড়ে ৩ শতাংশ জমি লিখে দিয়ে আসেন। এদিকে, চলতি মাসের ৫ই সেপ্টেম্বর নজরুল লোকজন নিয়ে দলিল করা জমি থেকে ৩৫ শতাংশ জমি দখল করতে আসে।
এতে তারা হতবাক হয়ে যায়। এরপর জমির দলিল তুলে দেখতে পায় প্রতারক নজরুল সাড়ে ৩ শতাংশ জমির পরিবর্তে ৩৫ শতাংশ জমি লিখে নিয়েছে দলিল লেখক জাকিরের সহযোগিতায়। দলিল ওঠানোর পর গত ১০ই সেপ্টেম্বর জমির মালিক মনু তার ভাই জাইদুল, কামাল, জামাল ও বোন হাসিনা প্রতারক নজরুল তার সহযোগী কাদির ও গোলজারকে এ ব্যাপারে জিজ্ঞেস করতে গেলে ক্ষিপ্ত হয়ে তারা উল্টো মারধর করে এবং বাড়াবাড়ি না করার জন্য হুমকি দেয়। অন্যথায় হত্যা করে তাদের গুম করে ফেলা হবে বলে শাসায় তারা। এ ঘটনায় মনু মিয়া বাদী হয়ে প্রতারকদের বিরুদ্ধে রূপগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।
এ বিষয়ে অভিযুক্ত নজরুলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি তাদের কাছ থেকে ৩৫ শতাংশ জমি ক্রয় করেছি। কিন্ত তারা এখন বলছে সাড়ে ৩ শতাংশ। আমি প্রথমে খোলা বায়না করে জমি রেজিস্ট্রি করেছি। তবে কতো টাকা দিয়ে তিনি জমি কিনেছেন তা জানাতে অস্বীকার করেন নজরুল।
এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ সাব রেজিস্ট্রি অফিসের সাব রেজিস্ট্রার শফিউল বারি বলেন, এ ধরনের প্রতারণার ঘটনা ঘটে থাকলে আমার কাছে যদি ভুক্তভোগী অভিযোগ করেন তাহলে সংশ্লিষ্ট দলিল লেখকের মাধ্যমে জমি গ্রহীতাকে ডেকে এনে সমাধানের চেষ্টা করবো। তিনি যদি সমাধান না করেন তাহলে দলিল বাতিলের আবেদনসহ তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হবে।
রূপগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এএফএম সায়েদ বলেন, প্রতারণা করে জমি লিখে নেয়া ও প্রাণনাশের হুমকির ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। প্রতারক চক্রের মূল হোতা নজরুলসহ তার সহযোগীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছে পুলিশ। তাদেরকে অতি দ্রুত আইনের আওতায় আনা হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর