× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৮ অক্টোবর ২০২১, সোমবার , ৩ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ
হাতিয়ায় নির্বাচনী সহিংসতা

হাতের কব্জি কেটে নিলো প্রতিপক্ষ

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার নোয়াখালী থেকে
২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার

হাতিয়ায় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে দফায় দফায় সংঘর্ষে ১৫ জন আহত হয়েছে। এদের মধ্যে জহির উদ্দিন বাবর (৪৫) নামে এক স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকের হাতের কব্জি কেটে নেয়ার অভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগ সমর্থকদের বিরুদ্ধে। আব্দুর রহমান (৪০) নামে আরো একজনকে মাথায় কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। এদের সকলের বাড়ি বুড়িরচর ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডে। তাদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য জেলা সদরে পাঠানো হয়েছে। গত শনিবার সন্ধ্যার পর নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার বুড়িরচর ইউনিয়নের ইব্রাহিম মার্কেটে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আহতরা সবাই স্বতন্ত্র প্রার্থী ফখরুল ইসলামের সমর্থক বলে জানায় স্থানীয়রা।

স্বতন্ত্র প্রার্থী ফখরুল ইসলাম জানান, শনিবার বিকালে সাগরিয়া বাজারে তাদের পূর্ব নির্ধারিত পথসভা ছিল। ৮নং ওয়ার্ড থেকে লোকজন সাগরিয়া বাজারে আসার পথে ইব্রাহীম মার্কেট এলাকায় প্রতিপক্ষের লোকজন তাদের ওপর হামলা করে।
এতে ঘটনাস্থলে ১৫ জন আহত হয়। পরে উপজেলা হাসপাতালে নেয়ার পর ২ জনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য জেলা সদরে পাঠানো পাঠানো হয়। এর মধ্যে বাবর নামে একজনের হাতের কব্জি কেটে দেয়া হয়েছে বলে তিনি অভিযোগ করেন। এ ব্যাপারে নৌকার প্রার্থী জিয়া আলী মোবারকের মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করে তাকে পাওয়া যায়নি। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাতে সাগরিয়া বাজারে উভয় পক্ষ মুখোমুখি অবস্থানে রয়েছে।

পরে উপজেলা সদর থেকে অতিরিক্ত পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বুড়িরচর ইউনিয়নে নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করছে জিয়া আলী মোবারক কল্লোল। প্রতিপক্ষ হিসাবে মাঠে আছে স্বতন্ত্র প্রার্থী ফখরুল ইসলাম। ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি সেলিম মাস্টারসহ অনেকে স্বতন্ত্র প্রার্থীর হয়ে নির্বাচন করছে। নোয়াখালীর পুলিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি মানবজমিনকে জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর