× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৯ অক্টোবর ২০২১, মঙ্গলবার , ৪ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

শরণখোলায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় আহত ৪০

বাংলারজমিন

শরণখোলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধি
২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, বুধবার

শরণখোলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় বসতবাড়িতে হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনায় প্রায় ৪০ জন আহত হয়েছে। আহতদের শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। এদের মধ্যে ৭ জনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। গত সোমবার শরণখোলা উপজেলার ৪টি ইউনিয়নের ১টিতে চেয়ারম্যান পদে ও ৩৫টি ওয়ার্ডে সদস্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে মঙ্গলবার উত্তর সাউথখালীর ৫নং ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত  মেম্বার মো. আলামিনের নেতৃত্বে ইউসুফ মোল্লা, হাফেজ মীর, সিদাম গাজী, আউয়াল হাওলাদার, নুরজাহান বেগম, জাকির পহলান, জলিল খাঁ, ছগির শাহ, খলিল পহলান, মালেক হাওলাদার ও প্রার্থী আ. হালিম খানের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানসহ প্রায় ১০-১২টি বাড়িতে হামলা হয়। এ হামলায় এলাকায় চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। সাবেক ইউপি সদস্য মো. আ. হালিম জানান, আমার কর্মীদের বাড়িঘর ভাঙচুর ও প্রত্যেকের ঘরের মালামাল লুট করে নিয়ে যায় সদ্য নির্বাচিত প্রার্থী মো. আল  আমিন ও তার সমর্থকরা। আমি এর সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি।
অন্যদিকে, উপজেলার জিলবুনিয়া, চালিতাবুনিয়া, বগী, শরণখোলা ও তাফালবাড়ীতে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে নারী-পুরুষসহ প্রায় ৪০ জন গুরুতর আহত হয়ে শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছে। আহতদের মধ্যে যুবলীগ নেতা রুবেল খলিফাসহ ৭ জনের অবস্থার অবনতি হলে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এ বিষয়ে নির্বাচিত ইউপি সদস্য মো. আল আমিন খান তার এলাকায় হামলা ও ভাঙচুরের বিষয়টি অস্বীকার করেন। এ ব্যাপারে শরণখোলা থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সায়েদুর রহমান বলেন, নির্বাচন ঘিরে কিছু অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটলে ও এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তবে অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর