× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৪ অক্টোবর ২০২১, রবিবার , ৮ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ
কলকাতা কথকতা

লন্ডন থেকে পাওয়া দুঃসংবাদে ম্রিয়মাণ মমতা, বিক্রি হয়ে যাচ্ছে রবীন্দ্রনাথের বাড়ি

কলকাতা কথকতা

জয়ন্ত চক্রবর্তী, কলকাতা
(৪ সপ্তাহ আগে) সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১, শুক্রবার, ২:৩৯ অপরাহ্ন

লন্ডনের হামস্টিড হিথ এর এই বাড়িটিতেই বসে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর ১৯১২ সালে তাঁর গীতাঞ্জলি কাব্যগ্রন্থের ১০৩টি কবিতা ইংরেজিতে অনুবাদ করেছিলেন। সেই অনুবাদ টি এস ইলিয়ট-এর চেষ্টায় সুইডেনের নোবেল কমিটির কাছে পৌছায়। ১৯১৩ সালে রবীন্দ্রনাথ নোবেল পুরস্কার পান। হামস্টিড হিথ এর এই বাড়িটির সঙ্গে রবীন্দ্রনাথের স্মৃতি জড়িয়ে আছে নিবিড়ভাবে। বাড়িটি বাঁচানোর জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ২০১৫ সালে তিনি যখন লন্ডন সফরে যান তখনই বাড়ির গায়ের নিল রঙের ফলকটি চোখে পড়েছিল মুখ্যমন্ত্রীর। ফলকে লেখা ছিল, এই বাড়িতে বসেই রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর তাঁর গীতাঞ্জলির ইংরেজি অনুবাদ করেছিলেন। বাড়িটি রাজ্য সরকার কিনে সেখানে একটি সংগ্রহশালা করার ভাবনা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মাথায় তখনই খেলে।
বৃটেনে তদানীন্তন ভারতীয় হাইকমিশনার রঞ্জন মাথাইকে এই মর্মে চিঠিও দেওয়া হয়। কিন্তু, মাথাই জানান বৃটিশ সরকার বাড়িটি হেরিটেজ ঘোষণা করায় সেটি ব্যক্তি মালিকানায় কেনা সম্ভব নয়। এরপর লাল ফিতের ফাঁসে চলে যায় পুরো ঘটনাটি। এই ৬ বছরের মধ্যে বাড়িটির হেরিটেজ ট্যাগ উঠে গিয়ে বাড়িটি যে বিক্রয়যোগ্য হয়েছে সেই খোঁজ আর ভারত সরকার রাখেনি। ফলে হামস্টিড হিথ এর এই বাড়িটি বিক্রি হয়ে যাচ্ছে ভারতীয় মুদ্রায় ২৭ কোটি ৩০ লক্ষ টাকায়। কলকাতায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিমর্ষ, বহু চেষ্টা করেও এক টুকরো ইতিহাসকে রক্ষা করতে না পারায়।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর