× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ২৩ অক্টোবর ২০২১, শনিবার , ৭ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

নিজ ঘরে হোঁচট রিয়াল মাদ্রিদের

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার

পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে রিয়াল মাদ্রিদ। আর দশমস্থানে ভিয়ারিয়াল। দু’দলের প্রতিদ্বন্দ্বিতায় অনুমিতভাবেই লস মেরেঙ্গুইসদের আধিপত্য থাকার কথা। তবে ম্যাচে সুবিধা করতে পারেনি তারা। আগের ম্যাচে মায়োর্কার বিপক্ষে গোল উৎসব করা রিয়াল মাদ্রিদ ভিয়ারিয়ালের জালে পাঠাতে পারেনি একটি বলও। শনিবার রাতে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে স্প্যানিশ লা লিগায় রিয়াল মাদ্রিদ-ভিয়ারিয়ালের ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র হয়েছে।
গোটা ম্যাচে বল দখলে ভিয়ারিয়ালের চেয়ে কিছুটা পিছিয়ে থাকলেও আক্রমণে প্রভাব বিস্তার করে রিয়াল মাদ্রিদ। ৪৮ শতাংশ বল দখলে রেখে প্রতিপক্ষের গোলবারের উদ্দেশ্যে ১৫টি শট নেয় কার্লো আনচেলত্তির দল। তবে লক্ষ্যে ছিল মাত্র ২টি শট।
অপরদিকে ৫২ শতাংশ বল দখলে রেখে ৬টি শটের ২টি লক্ষ্যে রাখতে সমর্থ্য হয় ভিয়ারিয়াল।
ত্রয়োদশ মিনিটে দারুণ এক আক্রমণে গোল পেতে পারতেন ভিয়ারিয়ালের আরনট ডানজুমা। বাঁ দিক দিয়ে বল পায়ে দুই ডিফেন্ডারের মধ্য দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে জোরালো শট নেন ডাচ উইঙ্গার। ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে বল ঠেকান রিয়াল মাদ্রিদ গোলরক্ষক থিবো কোর্তোয়া। ২১তম মিনিটে পাকো আলকাসেরের শটও ফিরিয়ে জাল অক্ষত রাখেন এই বেলজিয়ান গোলরক্ষক। বিরতি থেকে ফিরে সহজ সুযোগ নষ্ট করেন রিয়াল মাদ্রিদ ডিফেন্ডার এদের মিলিওতাও। ৫০তম মিনিটে বাঁদিক থেকে লুকা মদরিচের ক্রসে ছয় গজ বক্সের মুখ থেকে লক্ষ্যভ্রষ্ট হেড নেন এই ব্রাজিলিয়ান। পরের মিনিটে লক্ষ্যভ্রষ্ট হেড নেন করিম বেনজেমা।
৫৪তম মিনিটে ডানজুমার আরও একটি আক্রমণ প্রতিহত করেন কোর্তোয়া। তিন মিনিটের ব্যবধানে আরও একটি সুযোগ আসে ভিয়ারিয়ালের। ৫৭তম মিনিটে আলকাসের গোলমুখে বল পেয়ে শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি।
৬৩তম মিনিটে কামাভিঙ্গার লম্বা ক্রস ডি-বক্সের ভেতরে পেয়ে নাগাল পাননি করিম বেনজেমা। দৌঁড়ে এসে বল নিয়ন্ত্রণে নেন ভিয়ারিয়াল গোলরক্ষক জেরেনিমো রুলি।
৮১তম মিনিটে ডি-বক্সের ভেতরে সতীর্থের ক্রসে হেড নেন ইসকো। ভিয়ারিয়ালের গোলরক্ষক বল ঠেকিয়ে দিলে বল যায় ভিনিসিউস জুনিয়রের পায়ে। ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকারের শটও প্রতিপক্ষের এক খেলোয়াড়ের গায়ে লেগে ফেরত আসে।
পয়েন্ট হারালেও শীর্ষেই রয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। ৭ ম্যাচে ৫ জয় ও ২ ড্রয়ে ১৭ পয়েন্ট লস ব্লাঙ্কোদের। ৬ ম্যাচে ৪ জয় ও ২ ড্রয়ে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে সেভিয়া। ৭ ম্যাচে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে তিনে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। আর ভিয়ারিয়াল রয়েছে ১০ম স্থানে। ৬টি ম্যাচের মাত্র ১টিতে জয় পেয়েছে দলটি। বাকি পাঁচটিতেই ড্র করেছে তারা।
রিয়াল মাদ্রিদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনা রয়েছে অষ্টম স্থানে। ৫ ম্যাচে ২ জয় ও ৩ ড্রয়ে ৯ পয়েন্ট কাতালানদের।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর