× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ৭ জুলাই ২০২২, বৃহস্পতিবার , ২৩ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ জিলহজ্জ ১৪৪৩ হিঃ

স্ট্রোক এর সাতকাহন

শরীর ও মন

মেহবুবা রহমান
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, সোমবার

বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম মৃত্যুর কারন স্ট্রোক। ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন অনুযায়ী, প্রতিবছর বিশ্বব্যাপী ১৫ মিলিয়ন মানুষ স্ট্রোকের শিকার হয়। এর মধ্যে ৫ মিলিয়ন মারা যায় এবং আরও ৫ মিলিয়ন স্থায়ীভাবে অক্ষম বা প্যারালাইসিস এর সম্মক্ষিন হয়।

উচ্চ রক্তচাপ বিশ্বব্যাপী ১২..৭মিলিয়নেরও বেশি স্ট্রোকে অবদান রাখে।

ইউরোপে প্রতি বছর গড়ে প্রায় ৬৫০০০০ জন স্ট্রোকে মারা যায়।

উন্নত দেশগুলিতে রক্তচাপ হ্রাস এবং ধূমপান হ্রাস করার প্রচেষ্টার কারণে স্ট্রোকের ঘটনা হ্রাস পাচ্ছে। তবে জনসংখ্যার বৃদ্ধির কারণে স্ট্রোকের সামগ্রিক হার বেশি রয়েছে।উন্নয়নশীল দেশগুলোতে স্ট্রোকের হার বেরেই চলেছে...।

স্ট্রোকের সময় এর প্রতিটা মিনিট গণনা যোগ্য! দ্রুত চিকিৎসা মস্তিষ্কের ক্ষতি কমিয়ে দিতে পারে, যা রোগীকে মৃত্যুর হাত থেকে বাচাতে পারে।
স্ট্রোক এর লক্ষন গুলো হলোঃ

*মুখ, বাহু বা পায়ে হঠাৎ অসাড়তা বা দুর্বলতা, বিশেষ করে শরীরের একপাশে।

*হঠাৎ বিভ্রান্তি, কথা বলতে সমস্যা, বা বক্তৃতা বুঝতে অসুবিধা।

*এক বা দুই চোখে হঠাৎ দেখা সমস্যা।

*হঠাৎ হাঁটতে সমস্যা, মাথা ঘোরা, ভারসাম্য হারানো বা সমন্বয়ের অভাব।

*হঠাৎ গুরুতর মাথাব্যথা যার কোনও কারণ নেই।

স্ট্রোক এর লক্ষণগুলো প্রকাশ পাওয়ার পর ৩ ঘন্টার মধ্যে রোগীকে সঠিক চিকিৎসা দিতে পারলে কোন রকম ক্ষতি ছাড়া দ্রুত রোগীকে সুস্থ করা সম্ভব। আমরা স্ট্রোককে চিহ্নিত করার জন্য সহজ একটি উপায় অবলম্বন করতে পারি,

F—Face: রোগীকে হাসতে বলুন এবং লক্ষ্য করুন মুখের একপাশ কি ঝুলে আছে?
A—Arms: রোগীকে উভয় বাহু বাড়াতে বলুন। একটি বাহু কি নিচের দিকে সরে যাচ্ছে?
S—Speech: রোগীকে একটি সাধারণ বাক্যাংশ পুনরাবৃত্তি করতে বলুন। বক্তৃতা কি অস্পষ্ট নাকি অদ্ভুত?
T—Time: আপনি যদি এই লক্ষণগুলির মধ্যে কোনওটি দেখতে পান তবে দ্রুত চিকিৎসক এর শরণাপন্ন হন।

যদি আপনার লক্ষণগুলি কয়েক মিনিটের পরে চলে যায়, তাহলে আপনার একটি ক্ষণস্থায়ী ইস্কেমিক অ্যাটাক (টিআইএ) হতে পারে। যদিও সংক্ষিপ্ত, একটি (টিআইএ)একটি গুরুতর অবস্থার একটি চিহ্ন যা চিকিৎসা সহায়তা ছাড়া চলে যাবে না।
দুর্ভাগ্যবশত, অনেকেই (টিআইএ)পরিষ্কার হয়ে গেলে, তাদের অবহেলা করে।
কিন্তু (টিআইএ)দিকে মনোযোগ দিলে এটি আপনার জীবন বাঁচাতে পারে। আপনার চিকিৎসককে আপনার লক্ষণগুলি সম্পর্কে অবিলম্বে বলুন এবং দ্রুত সঠিক পদক্ষেপ গ্রহন করুন।

মেহবুবা রহমান
ভার্টেক্স হোমিও হল
৪৮/বি উত্তর কমলাপুর স্টেশন রোড,
ফোনঃ০২২২২২২১৬০৭,০১৯০৬৬০১৮০১
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর