× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৫ অক্টোবর ২০২১, সোমবার , ৯ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

ঈশ্বরদীতে আওয়ামী লীগের সম্মেলনের কারণে স্কুল বন্ধ ঘোষণা

অনলাইন

ঈশ্বরদী (পাবনা) প্রতিনিধি
(৩ সপ্তাহ আগে) সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২১, মঙ্গলবার, ১০:৪৬ পূর্বাহ্ন

শিক্ষার্থীদের মানসিক নিরাপত্তা ব্যাহত ও দলীয় মহড়ার আশঙ্কায় পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনের দিন স্কুল বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। আগামীকাল বুধবার শহরের আলহাজ্ব টেক্সটাইল মিলস উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আওয়ামী লীগের এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সোমবার বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক মো. মোজাম্মেল হক সম্মেলনে শিক্ষার্থীদের সার্বিক নিরাপত্তা বিবেচনায় এ ঘোষণা দেন।
ঈশ্বরদী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সেলিম আকতার বলেন, সম্মেলনে জন্য ক্লাস বন্ধ রাখার কোনো বিধান নেই। তবে প্রতিষ্ঠান প্রধান তার বাৎসরিক সংরক্ষিত ছুটির তালিকা থেকে ঐচ্ছিক ছুটি দিতে পারেন। বিষয়টি নির্ভর করে তার ইচ্ছার ওপর।
জানা গেছে, দীর্ঘ সাত বছর পর বুধবার অনুষ্ঠিত হচ্ছে এ সম্মেলন। এতে কেন্দ্রীয় নেতার মধ্যে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মো. আব্দুর রহিম ও বিশেষ অতিথি সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নায়েব আলী বিশ্বাস এতে সভাপতিত্ব করবেন। সম্মেলনকে কেন্দ্র করে দলের দুইটি পক্ষের মধ্যে কয়েক দিন ধরে দ্বন্দ্ব-সংঘাত ও মহড়া চলছে।
এ নিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে রয়েছে উৎকণ্ঠা।

সরজমিন গিয়ে দেখা যায়, আলহাজ্ব স্কুলে শহীদ মিনারের সামনে থেকে খেলার মাঠে বিশাল প্যান্ডেল তৈরি হচ্ছে। মাঠের নিচু জায়গায় বালু দিয়ে ভরাট করা হচ্ছে। তৈরি করা হচ্ছে বিশাল মঞ্চ।
পৌর কাউন্সিলর ইউসুফ আলী বলেন, মাঠ ভরাট করার জন্য ইতিমধ্যে ৪০ ট্রাক বালু ফেলা হয়েছে। আমাদের প্রস্তুতি প্রায় শেষ।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষার্থী জানায়, করোনায় দেড় বছর স্কুল বন্ধ ছিল। এখন আবার সম্মেলনের জন্য ক্লাস বন্ধ থাকবে। ইচ্ছে করলে নেতারা অন্য কোথাও সম্মেলনের স্থান করতে পারতেন।
প্রধান শিক্ষক বলেন, সম্মেলনে দিন হই-হল্লা, চিৎকার ও গ্যাঞ্জাম হতে পারে। অনেকে মহড়া দেবে। এ জন্য আমি মৌখিক নোটিশে বুধবার ক্লাস বন্ধ রাখার কথা বলেছি।
আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেনে বলেন, এখন তো সব দিনই ক্লাস হয় না। যেদিন ক্লাস বন্ধ থাকবে সেদিন সম্মেলন হতে পারে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর