× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ৯ ডিসেম্বর ২০২১, বৃহস্পতিবার , ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

ছেলের বিরুদ্ধে মামলা করলেন চবি'র ডেপুটি রেজিস্ট্রার

শিক্ষাঙ্গন

চবি প্রতিনিধি
(২ মাস আগে) অক্টোবর ২, ২০২১, শনিবার, ৪:৫০ অপরাহ্ন

মাদকাসক্ত সন্তানের হামলায় আহত হয়েছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ জাফরুল আলম চৌধুরী (৫৯)। আজ শনিবার দিবাগত রাত তিনটার দিকে এ ঘটনায় ছেলে মোঃ শাখাওয়াত শাহরিয়ার চৌধুরীকে (২৭) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

জানা যায়, গতকাল শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ডেপুটি রেজিষ্টার মোহাম্মদ জাফরুল আলম চৌধুরী বাসার বাথরুমে অজু করার সময় মাদক সেবনকারী ছেলে নগদ টাকা চায়। টাকা না দেয়ায় ছেলে তাকে এলোপাথারি কিল-ঘুষি লাথি মেরে বাথরুমে ফেলে দেয়। এক পর্যায়ে চেয়ার দিয়ে মাথায় আঘাত করলে গুরুতর জখম হন তিনি। আহত অবস্থায় তার চিৎকার শুনে স্ত্রী  আসলে ছেলে তাকে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে রুমে চলে যায়।

মারধরে জাফরুল আলম এর মাথা, হাতসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়েছে। পরবর্তীতে তার অন্য  ছেলে- মেয়েরা এসে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। এখন তিনি সেখানে চিকিৎসারত আছেন। এ ঘটনায় তিনি নগরীর পাঁচলাইশ থানায় ছেলের নামে মামলা দায়ের করেছেন।

এ বিষয়ে ডেপুটি রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ জাফরুল আলম চৌধুরী বলেন, ছেলেকে পড়াশোনা করানোর জন্য বিভিন্নভাবে চেষ্টা করেও পারিনি৷ আমার এক ছেলে ডাক্তার এক ছেলে ইঞ্জিনিয়ারিং পড়ছে৷ কিন্তু এই ছেলেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা করেও পড়াশোনা করানো সম্ভব হয়নি।

তিনি বলেন, ছেলেকে আমি এর আগে হাসপাতালে ভর্তি করিয়ে চিকিৎসা করিয়েছি।
কিন্তু তার মা তাকে সেখান থেকে নিয়ে আসে৷ সে প্রতিনিয়ত পরিবারে অত্যাচার চালায়। এর আগে তাকে কয়েকবার জেল হাজতেও পাঠিয়েছি। কিন্তু তার মা তাকে আবার বের করে নিয়ে আসে।

তিনি আরও বলেন, এখন মামলার এজাহারে পেনাল কোড ধারা-৩২৩/৩২৫/৩০৭/৫০৬ দিলেও আমি চাই তাকে ৩২৬ ধারা অনুসারে গ্রেফতার দেখানো হোক। তাহলে তার মা আর তাকে বের করে আনতে পারবেনা। তারপরও যদি সে ভালো হয়ে যায়।

এ বিষয়ে পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহেদুল কবির বলেন, এক পিতার অভিযোগের ভিত্তিতে ছেলেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে মাদক সেবনের টাকার জন্য এই ঘটনা ঘটিয়েছে বলে স্বীকার করেছে। মামলাটি তদন্তাধীন রয়েছে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর