× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৮ অক্টোবর ২০২১, সোমবার , ৩ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

ইভ্যালির হাত ধরেই ৫ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান দেউলিয়া

দেশ বিদেশ

আল-আমিন
১৩ অক্টোবর ২০২১, বুধবার
সর্বশেষ আপডেট: ১:০৫ অপরাহ্ন

দেউলিয়া হয়ে যাওয়া ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালির সঙ্গে ৫ টি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের যোগসূত্র পাওয়া গেছে। ওই ৫ প্রতিষ্ঠানের মালিক ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা কেউ  ইভ্যালিতে চাকরি করেছে বা রাসেলের সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করে প্রতারণার হাত পাকিয়েছে। এই ৫টি প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে গ্রেপ্তার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তার মধ্যে একটি প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান কানাডায় পালিয়ে গেছেন। তাকে ইন্টারপোলের মাধ্যমে দেশে ফিরিয়ে আনার জন্য চেষ্টা চলছে। ওই ৫টি প্রতিষ্ঠান হলো- ধামাকা ডটকম, কিউকম, রিং আইডি, থলেকম ও নিরাপদ ডটকম। ইভ্যালিতে পণ্য ডেলিভারি নিয়ে প্রতারণার বিদ্যা শেখার পর তারা আবার নিজেরাই প্রতিষ্ঠান খুলে বসেছেন। ইভালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রাসেল এবং তার স্ত্রী এখন কারাগারে।
ইভ্যালির হিসাবে ৫৪৪ কোটি টাকার নয়- ছয় পাওয়া গেছে। আর ইভ্যালির সঙ্গে  যোগসাজশ থাকা আরও ৫টি প্রতিষ্ঠানের কয়েক শ’ কোটি টাকার হিসাব মিলাতে পারছে না আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। র‌্যাব ও পুলিশ বলছে, ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী  কর্মকর্তা রাসেল যেমন নিজের কোম্পানিকে দেউলিয়া করেছেন, তেমন করে তার সঙ্গে যোগসাজশ থাকা প্রতিষ্ঠানের মালিক ও ঊর্র্ধ্বতন কর্মকর্তাদের তিনি সঠিক পরামর্শ দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। এতে তারাও দেউলিয়া হয়ে গেছেন। ইভ্যালি ছাড়াও এই ৫টি প্রতিষ্ঠানও অনলাইনে জমজমাট ব্যবসা করেছে। কিন্তু তারা পরে এই সঠিক সময়ে পণ্য ডেলিভারি দেয়ার নিয়ম আর ধরে রাখতে পারেনি।
এ বিষয়ে র‌্যাব’র আইন ও গণমাধ্যম বিভাগের পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন জানান, ই-কমার্স ধামাকার তিন কর্মকর্তাকে র‌্যাব গ্রেপ্তার করে জিজ্ঞাসাবাদ করে। তারা জানায়, এক সময় ইভ্যালিতে তারা চাকরি করেছে।’ ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার (ডিবি) একেএম হাফিজ আক্তার রাসেল জানান, ‘পুলিশ যে ক’টি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাকে ধরেছে তাদের সঙ্গে ইভ্যালির সংযোগ পাওয়া গেছে।’
আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্রে জানা গেছে, গত ২৯শে সেপ্টেম্বর রাজধানীর তেজগাঁও এলাকায় অভিযান চালিয়ে ধামাকা শপিংয়ের সিওও (চিফ অপারেটিং অফিসার) সিরাজুল ইসলাম রানা, ক্যাটাগরি হেড (মোবাইল ফ্যাশন ও লাইফ স্টাইল) ইমতিয়াজ হাসান সবুজ এবং ক্যাটাগরি হেড (ইলেক্টনিক্স) ইব্রাহীম স্বপনকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। তারা তিনজনই এক সময় ইভ্যালিতে চাকরি করতেন। পরে রাসেলের পরামর্শে তারা ধামাকা অনলাইন শপিং খুলে বসেন। রাসেলের কুটবুদ্ধিতে তারা গ্রাহকের পণ্য নিয়ে নয়-ছয় শুরু করেন।
সূত্র জানায়, গত ৪ঠা অক্টোবর রাজধানীর ধানমন্ডি এলাকা থেকে কিউকমের চেয়ারম্যান রিপন মিয়াকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে ওই কোম্পানির সঙ্গে যোগসাজশ থাকার কারণে আরজে নিরবকে গ্রেপ্তার করা হয়। তারা দুইজনই এখন কারাগারে। রিপন মিয়া পুলিশকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানিয়েছেন যে, তার সঙ্গে ইভ্যালির রাসেলের সম্পর্ক ছিল। ব্যবসায়িক বিষয়ে তিনি তার পরামর্শ গ্রহণ করেছেন।
সূত্র জানায়, গত ৬ই অক্টোবর ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান নিরাপদ ডটকমের পরিচালক ফারহানা আফরোজ এ্যানিকে (২৯)  গ্রেপ্তার করে সিআইডি। নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লা মডেল থানায় নিরাপদ ডটকমের অনলাইনের সিইও এবং ডিরেক্টরের বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগে মামলা করেন ফাহিম হোসেন নামে এক ক্রেতা। নিরাপদ ডটকম-এর সিইও শাহরিয়ার খানের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল রাসেলের। সূত্র জানায়, গত ৪ঠা অক্টোবর রিং আইডি’র পরিচালক সাইফুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে সিআইডি। তবে এর মালিক শরিফ ইসলাম কানাডায় পালিয়ে গেছে। পুলিশের অনুরোধে  প্রতিষ্ঠানটির প্রায় ২০০ কোটি ব্যাংক হিসাব জব্দ করেছে ব্যাংলাদেশ ব্যাংক। শরিফের সঙ্গে রাসেল আবার অনলাইন ব্যবসার বিষয়ে তথ্য লেনদেন করতেন। এছাড়াও থলে ডটকমের সিও-এর সঙ্গে রাসেলের যোগাযোগ ছিল বলে জানা গেছে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Abdur Rahim
১৩ অক্টোবর ২০২১, বুধবার, ৭:১২

এই ডিজিটাল মাফিয়াদের কঠোরতম শাস্তি হওয়া উচিৎ।

Ripon
১৩ অক্টোবর ২০২১, বুধবার, ১২:৪৯

বিশ্বাস করো রাসেল ভাই আমি কিছু জানিনা।

অন্যান্য খবর