× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৮ অক্টোবর ২০২১, সোমবার , ২ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

সাপ দিয়ে স্ত্রীকে মারার দায়ে সারাজীবন জেলেই কাটবে সুরাজের

ভারত

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা
(৩ দিন আগে) অক্টোবর ১৪, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১২:৫৭ অপরাহ্ন
সর্বশেষ আপডেট: ৮:৪০ অপরাহ্ন

বিষাক্ত ভাইপার সাপের কামড় খাইয়ে স্ত্রী উথরাকে হত্যার দায়ে কেরালার আদালত ডাবল যাবজ্জীবন দণ্ড দিল অভিযুক্ত স্বামী সুরাজকে। সুরাজের বয়স এখন ২৮। বিচারক তার রায়ে বলেন সুরাজের মৃত্যুদণ্ড হওয়া উচিত ছিল। কিন্তু, তার বয়সের কথা ভেবে তাকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়নি ঠিকই, কিন্তু বাকি জীবনটা তাকে কাটাতে হবে জেলে। যে সাপ দুটো সে ভাড়া করেছিল সাপুড়ে সুরেশের কাছ থেকে সেই দুটোর বিষদাঁত ভাঙা হয়নি। সাপুড়ে সুরেশ অবশ্য রাজসাক্ষী হয়ে অব্যাহতি পায়।
সম্পত্তির লোভে স্ত্রীকে হত্যা করে সুরাজ। সে প্রথমে ২০২০'র মার্চ মাসে একটি চন্দ্রবোড়া সাপ ঢুকিয়ে দেয় উথরার ঘরে।
সাপটি অবধারিত ভাবে কামড়ায় উথরাকে। কিন্তু, ৫১ দিন হাসপাতালে লড়াই করে সে ফিরে আসে। মনস্কামনা  পূর্ণ না হওয়ায় সুরাজ ২০ হাজার টাকার বিনিময়ে একটি গোখরো সাপ ভাড়া করে। সেই সাপের কামড়েই উথরার মৃত্যু ঘটে। কৃতকর্মের জন্যে সুরাজকে কখনই অনুত্তপ্ত মনে হয়নি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kazi
১৪ অক্টোবর ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১২:০৪

মৃত্যুদণ্ড হল না ? হত্যার শাস্তি তো মৃত্যু দণ্ড ।

অন্যান্য খবর