× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠি
ঢাকা, ১৮ অক্টোবর ২০২১, সোমবার , ২ কার্তিক ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ

বৃটেনে নারী সুরক্ষায় বিটি চালু করছে নতুন হেল্প লাইন

অনলাইন

বৃটেন থেকে প্রতিনিধি
(৩ দিন আগে) অক্টোবর ১৪, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১:২৫ অপরাহ্ন

বৃটেনে আলোড়ন সৃষ্টিকারী সারাহ ইভারার্ড নামে নারী হত্যার ঘটনার মামলার রায় হলে এখনও এর রেশ কাটেনি। গত মাসে হত্যাকারী ওয়েন কুজেনস নামে পুলিশকে আজীবন কারাদণ্ড দেয় দেশটির আদালত। মামলায় বৃটেনের সর্বোচ্চ শাস্তি প্রদান করা হয় অভিযুক্তকে। এই পুলিশ কর্মকর্তা কোন দিন প্যারোলে বের হতে পারবেন না। ঘটনার তদন্ত করতে গিয়ে দেশটির পুলিশ সম্পর্কে ভয়ানক তথ্য প্রকাশ্যে আসে। গত চার বছর ধরে দেশটির পুলিশ ধর্ষণ, যৌন হেনস্থা ও শিশু নিগ্রহের প্রায় দুই হাজার ঘটনার সঙ্গে জড়িত, যা সবাইকে ভাবিয়ে তুলেছে। যার ফলে নারীর সুরক্ষা নিয়ে দেশটিতে নানা আলোচনা চলছে এখন জোরে সুরে। এর মধ্যে নারী সুরক্ষায় নতুন হেল্প লাইন চালু করছে বিটি।
এটা বাস্থবায়ন করতে ৫০ মিলিয়ন পাউন্ড ব্যয় হবে। সারাহ এভারার্ডের হত্যাকান্ডের পর নিরাপত্তা সংক্রান্ত ব্যাপক শংকার প্রেক্ষাপটে এ পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিটি। বৃটেনে ৯৯৯ সার্ভিস (পরিচালনাকারী) জরুরী সেবা দানকারী বৃটিশ টেলিকমিউনিকেশন্স কোম্পানী একটি মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করে লোকজনের ভ্রমণপথ নির্ণয় ও বাড়িতে প্রত্যাবর্তনের বিষয়টি নিশ্চিত করে সতর্কবার্তা দেবে।

এদিকে, বিটির পরিকল্পনাকে সমর্থন করে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রীতি প্যাটেল বলেছেন, তিনি বিটির সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন। এই পরিকল্পনার অধীনে অ্যাপস ব্যবহারকারীরা ৮৮৮ নম্বরে ফোন বা টেক্সট করে বলতে পারবেন, তাদের বাড়িতে বা অন্য গন্তব্যে পৌঁছতে কতো মিনিট লাগতে পারে। অতঃপর জিপিএস ব্যবহারপূর্বক তাদের ট্যাক বা গন্তব্য সনাক্ত করা হবে এবং অ্যাপটি এটা পরীক্ষা করতে একটি মেসেজ পাঠাবে যে, ব্যবহারকারী নিরাপদে বাড়িতে ফিরেছেন কি-না, যদি এতে সাড়া না পাওয়া যায় তবে সতর্কতাসহ জরুরী যোগাযোগ করা হবে। তবে বিগ ব্রাদার ওয়াচ ক্যাম্পেইন গ্রুপের পরিচালক সিল্কি কার্লো দ্য ইন্ডিপেন্ডেট পত্রিকাকে বলেছেন, নারীদের গতিবিধি ট্রাক করা পুরুষ সহিংসতার সমাধান নয়, এটি একটি ভয়ঙ্কর বিপথগামী মহিলাদের নিরাপদ করার জন্য কিছুই করবে না। রাইটস অফ উইমেন্সের সিনিয়র লিগ্যাল অফিসার লেই মরগান বলেছেন, এই স্কিমটি পুরুষের সহিংসতা থেকে রক্ষার জন্য ক্রুটিপূর্ণ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর