× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ৫ ডিসেম্বর ২০২১, রবিবার , ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

ধোনিকে পেয়ে মনোবল বেড়েছে কোহলিদের

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
১৮ অক্টোবর ২০২১, সোমবার

এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারত দলের মেন্টরের ভূমিকা নিয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। আর সাবেক অধিনায়ককে মেন্টর হিসেবে পেয়ে উচ্ছ্বসিত বিরাট কোহলি। ভারত দলের অধিনায়ক বলেন, ধোনির উপস্থিতিতে তাদের আত্মবিশ্বাস বেড়েছে। ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এবং চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জেতা একমাত্র অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। ২০০৭ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম আসরে ভারতের শিরোপাজয়ী অধিনায়ক তিনি। ২০১১ ওয়ানডে বিশ্বকাপে তার হাত ধরে ২৮ বছরের অপেক্ষার অবসান ঘটিয়ে ট্রফি জেতে ভারত। ২০১৩ আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেও তার অধিনায়কত্বে চ্যাম্পিয়ন হয় ভারতীয়রা। ধোনির নেতৃত্বে ভারত খেলেছে ২০০ ওয়ানডে, জিতেছে ১১০টি। দুটিই রেকর্ড। টি-টোয়েন্টিতেও তিনি ভারতের সফলতম অধিনায়ক। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগের ৬ আসরেই খেলেছেন ধোনি এবং নেতৃত্ব দিয়েছেন ভারতকে। আর মেন্টর হিসেবে ধোনিকে পাওয়া দলের সবার জন্য বাড়তি প্রেরণার, বললেন বিরাট কোহলি। ভারত অধিনায়ক বলেন, ‘তাকে পেয়ে আমরা সত্যিই আনন্দিত। তার উপস্থিতি অবশ্যই দলের মনোবল আরও বাড়িয়ে দেবে। দল হিসেবে যতটা আছে এর চেয়ে বেশি আত্মবিশ্বাস যোগাবে।’ ২০০৮ সালে শ্রীলঙ্কা সফরে ওয়ানডে দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখেন কোহলি। যেখানে তার অধিনায়ক ছিলেন ধোনি। নিজেকে প্রমাণ করে পরে কোহলি হয়ে ওঠেন ধোনির দলের গুরুত্বপূর্ণ সদস্যদের একজন। খুব কাছ থেকে দেখার সুবাদে কোহলি বুঝতে পারছেন দলের সঙ্গে ধোনির থাকা কতটা প্রভাব ফেলবে। কোহলি বলেন, ‘বছরের পর বছর ধরে যে অভিজ্ঞতা তিনি অর্জন করছেন, তা আমরা ব্যবহার করতে চাই এবং ম্যাচ নিয়ে তার সঙ্গে আলোচনা করতে চাই। ম্যাচ কোন দিকে যাচ্ছে এবং কীভাবে আমরা ছোট একটি পদক্ষেপে উন্নতি করতে পারি, এসব কৌশলগত ও জটিল বিষয় নিয়ে।’ কোহলি বলেন, ‘ফিরে আসতে পেরে উচ্ছ্বসিত এমএস (ধোনি), যদিও তিনি সবসময়ই আমাদের সবার মেন্টর ছিলেন। আরও একবার এই সুযোগ পাচ্ছেন তিনি এবং সেই তরুণদের সঙ্গে কাজ করতে যাচ্ছেন যারা তাদের ক্যারিয়ারের শুরুতে একটি বড় টুর্নামেন্টে খেলছে।’ আগামী ২৪শে অক্টোবর চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবে ভারত।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর