× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ৫ ডিসেম্বর ২০২১, রবিবার , ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

দেশে ৭.৮৬ মিলিয়ন শিক্ষার্থী শিখন ঘাটতির ঝুঁকিতে: গবেষণা

অনলাইন

অর্থনৈতিক রিপোর্টার
(১ মাস আগে) অক্টোবর ১৮, ২০২১, সোমবার, ৮:০৪ অপরাহ্ন
ফাইল ছবি

করোনা মহামারির কারণে প্রায় ১৮ মাস ধরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় দেশে ৭.৮৬ মিলিয়ন শিক্ষার্থী শিখন ঘাটতির ঝুঁকিতে আছে বলে এক জরিপে দেখা গেছে।

সোমবার ব্র্যাক ইনস্টিটিউট অব গর্ভনেন্স অ্যান্ড ডেভেলপমেন্টের (বিআইজিডি) এ তথ্য জানায়। পাওয়ার অ্যান্ড পার্টিসিপেশন রিসার্চ সেন্টার (পিপিআরসি) এবং বিআইজিডি যৌথভাবে এই জরিপ চালায়।

পিপিআরসির নির্বাহী চেয়ারম্যান হোসেন জিল্লুর রহমান ও বিআইজিডির নির্বাহী পরিচালক ইমরান মতিন আজ এক ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে এই গবেষণা প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন। গত আগস্টে এই গবেষণা কার্যক্রম পরিচালিত হয়।

পিপিআরসির নির্বাহী চেয়ারম্যান হোসেন জিল্লুর রহমান বলেন, এদের মধ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ৩.৯৬ মিলিয়ন ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ৩.৯০ মিলিয়ন। যা দেশের প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের ২২ শতাংশ ও মাধ্যমিক শিক্ষার্থীদের ৩০ শতাংশ।

এর আগে, মার্চে করা পিপিআরসি এবং বিআইজিডির আরেকটি যৌথ গবেষণার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, 'শিখন ঘাটতির ঝুঁকিতে থাকা শিক্ষার্থীর সংখ্যা বেড়েছে।'

মার্চের জরিপে দেখা গেছে, প্রায় ১ বছর ধরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় কমপক্ষে ৫.৯২ মিলিয়ন শিক্ষার্থী শিখন ঘাটতির ঝুঁকিতে আছে।

এদের মধ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ৩.৪২ মিলিয়ন ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ২.৫০ মিলিয়ন।।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর