× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ১ ডিসেম্বর ২০২১, বুধবার , ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রকে ঘিরে পরাশক্তিদের মধ্যে নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতা

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) অক্টোবর ২১, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ৫:৫৮ অপরাহ্ন

হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র নিয়ে পরাশক্তিগুলোর মধ্যে শুরু হয়েছে নতুন অস্ত্র প্রতিযোগিতা। চলছে ঘন ঘন পরীক্ষা। এখন পর্যন্ত ৮টি রাষ্ট্র সবথেকে এগিয়ে আছে হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র প্রযুক্তিতে। দৌড়ে যেমন আছে যুক্তরাষ্ট্র, চীন ও রাশিয়ার মতো পরাশক্তি, তেমনি আছে উত্তর কোরিয়াও। বিশ্লেষকরা বলছেন, পৃথিবীর ক্ষমতাধর দেশগুলোর মধ্যে সামরিক শক্তিতে শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের প্রতিযোগিতার একটা অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ পর্ব চলছে এখন। এই হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র নিয়েই একটি বিস্তারিত প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে বিবিসি। এতে বলা হয়েছে, এতদিন ধরে বিভিন্ন দেশের হাতে যেসব দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ছিল, সেগুলো অনেকটা সেকেলে হয়ে যাচ্ছে। ফলে শূন্যস্থান পূরণ করতেই শুরু হয়েছে নতুন এক প্রতিযোগিতা।

শব্দের গতি হচ্ছে প্রতি সেকেণ্ডে ১,১২৫ ফুট। সামরিক জেট বিমান এর থেকে দ্রুত গতিতে ছুটতে পারে। এগুলোকে বলা হয় সুপারসনিক বিমান। তবে হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুটতে পারে শব্দের চেয়ে ৫ থেকে ৯ গুণ বেশি গতিতে। এ ধরণের মিসাইল থামিয়ে দেয়া প্রায় অসম্ভব। ফিনান্সিয়াল টাইমসের এক রিপোর্ট জানানো হয়, গত আগস্ট মাসে চীন শব্দের চেয়ে ৫গুণ দ্রুতগতিসম্পন্ন ও পারমাণবিক অস্ত্র বহনে সক্ষম একটি ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে। যুক্তরাষ্ট্র এতে উদ্বেগ প্রকাশ করে। যদিও চীন দাবি করছে যে ওটা ছিল পুনর্ব্যবহারযোগ্য একটি মহাকাশযান। অক্টোবরের ৪ তারিখে এপি খবর দেয়, রাশিয়া তাদের একটি পারমাণবিক সাবমেরিন থেকে একটি হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপের পরীক্ষা সফলভাবে সম্পন্ন করেছে। ব্যারেন্টস সী-তে 'সেভারোদভিনস্ক' সাবমেরিন থেকে জিরকন নামের দুটি ক্ষেপণাস্ত্রের এই পরীক্ষা চালানো হয়। শব্দের চেয়ে ৯ গুণ দ্রুতগতিতে উড়ে গিয়ে ১,০০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারে এই জিরকন। শুধু এই জিরকনই নয়, আরও কয়েক ধরনের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করছে রাশিয়া। এদিকে সেপ্টেম্বর মাসের ২৭ তারিখ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র রেথিওন নামে একটি হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করে। এটি ছিল শব্দের চেয়ে ৫ গুণ দ্রুতগতিসম্পন্ন। রয়টার্স বলছে, ২০১৩ সালের পর এই স্তরের কোন সমরাস্ত্রের সফল পরীক্ষা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এই প্রথম চালালো। এছাড়া উত্তর কোরিয়া গত কিছু দিনে একের পর এক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে। কিছুদিন আগেই তারা একটি হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্রও পরীক্ষা করেছে। যদিও দক্ষিণ কোরিয়ার সূত্রগুলো বলছে, ওই পরীক্ষা সফল হয়নি।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর