× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ১ ডিসেম্বর ২০২১, বুধবার , ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

বড় জয়ে সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশ

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
২১ অক্টোবর ২০২১, বৃহস্পতিবার

‘প্রথম দুই ম্যাচ যদিও হেরেছি, তার পরও এখনও আমাদের সুযোগ আছে। স্কটল্যান্ড প্রথম ম্যাচে অঘটন ঘটিয়েছে। আমাদের বিশ্বাস আছে, আমরা একইরকম কিছু করতে পারি।’- বাংলাদেশের বিপক্ষে নামার আগের দিন সংবাদসম্মেলনে অঘটন ঘটানোর প্রত্যাশা ব্যক্ত করেছিলেন পাপুয়া নিউগিনির ব্যাটার চার্লস আমিনি। টি- টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নবাগত দলটির স্বপ্নপূরণ হলো না; বরং টাইগারদের থাবায় তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিলো পিএনজি। ১৮২ রানের লক্ষ্যে মাত্র ৯৭ রানেই প্যাকেট হয়ে গেলো দলটি। ৮৪ রানের বড় জয়ে সুপার টুয়েলভ নিশ্চিত হলো বাংলাদেশের।
টসে জিতে শুরুতে ব্যাট করতে নেমে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, সাকিব আল হাসানদের ব্যাটে ভর করে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৮১ রানের বড় সংগ্রহ জড়ো করে বাংলাদেশ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে মাত্র ১৯.৩ ওভারে সবকটি উইকেট হারায় পাপুয়া নিউগিনি।
লক্ষ্য নিয়ে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ধীর গতিতে করলেও মাত্র ১৪ রানে ৪ উইকেট হারায় পাপুয়া নিউগিনি। ২.২ ওভারে তোলে ১১ রান। এরপরই শুরু হয় টাইগার বোলারদের তা-ব। ৩ রান তুলতে চার উইকেট হারায় পিএনজি।
বাংলাদেশের হয়ে পাপুয়া নিউগিনির ব্যাটিং লাইনআপে প্রথম আঘাতটি হানেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন। ওপেনার লেগা সাকাকে ফেরান ৫ রানে।
অধিনায়ক আসাদ ভালাকে ৬ রান এবং দলীয় ১৩ রানে ফেরান তাসকিন আহমেদ। ২ বলে ১ রান করে সাকিব আল হাসানের শিকারে পরিণত হন চার্লস আমিনি। দলীয় ১৪ রানে নিজের দ্বিতীয় উইকেট হিসেবে সিমোন আতাইকে ফেরান সাকিব।
দলীয় ২৪ রানে আরও দুটি উইকেট হারায় পাপুয়া নিউগিনি। সেসে বাউকে ফেরান সাকিব। টাইগার অলরাউন্ডারের এটি ম্যাচের তৃতীয় উইকেট। ৫ রান যোগ করতে সপ্তম উইকেট হারায় পিএসজি। ২ বল খেলে রানের খাতা খোলার আগেই মেহেদী হাসানের শিকারে পরিণত হন নরমান ভানুয়া।
চাদ সোপার ১১ রানে আউট হওয়ার পর একাই প্রতিরোধ গড়েন ক্লিপিন দোরিগা। ৬০ রানের ভেতর অলআউট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনায় থাকা দলকে টেনে নিয়ে যান তিনি। ৩৪ বলে দুটি করে চার-ছক্কায় ৪৬ রানে অপরাজিত থাকেন তিনি।
কাবুয়া মোরেয়া ৬ বলে ৩ ও দামিয়েন রাভু ৫ বলে ৫ করে আউট হলে ৯৭ রানে থামে পিএনজির ইনিংস।
ব্যাট হাতে আলো ছড়ানোর পর বল হাতেও জাদু দেখিয়েছেন সাকিব আল হাসান। ৪ ওভারে মাত্র ৯ রান দিয়ে নিয়েছেন ৪টি উইকেট। দুটি করে উইকেট নেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন ও তাসকিন আহমেদ। মেহেদী হাসানের শিকার এক উইকেট। টাইগারদের মধ্যে সবচেয়ে খরুচে ছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান। ৪ ওভার হাত ঘুরিয়ে ৩৪ রান দিলেও কাটার মাস্টার নিতে পারেননি একটি উইকেটও।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর