× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ১ ডিসেম্বর ২০২১, বুধবার , ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

আইরিশদের কাঁদিয়ে নামিবিয়ার ইতিহাস

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
২৩ অক্টোবর ২০২১, শনিবার

বিশ্ব ক্রিকেটে নামিবিয়া খুব বেশি অপরিচিত নাম নয়। ২০০৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপে প্রথমবার বিশ্বমঞ্চে খেলে দেশটি। যদিও বিশ্বমঞ্চে অভিষেক সুখকর হয়নি তাদের। ৬ ম্যাচের সবকটিতে হার। একশ’র নীচে অলআউট হওয়ার লজ্জা পেতে হয়ে দু’বার। ১৮ বছর পর আরেকটি বিশ্বমঞ্চে অভিষেক নামিবিয়ার। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অভিষেকেই ইতিহাস গড়েছে আফ্রিকা মহাদেশের দেশটি। নাম লিখিয়েছে সুপার টুয়েলভে। আয়ারল্যান্ডকে ৮ উইকেটে উড়িয়ে পরের রাউন্ডে নামিবিয়া।

শারজাহতে আয়ারল্যান্ডের দেয়া ১২৬ রানের লক্ষ্য ৯ বল ও ৮ উইকেট হাতে রেখেই পেরিয়ে যায় নামিবিয়া। দলটির জয়ের নায়ক দেশ বদলে নামিবিয়ার হয়ে বিশ্বকাপ খেলতে নামা ডেভিড ভিসা। ২২ রানে ২ উইকেট নেয়ার পর ব্যাট হাতে আরো একবার ঝড় তোলেন ৩৬ বছর বয়সী এই অলরাউন্ডার। দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অলরাউন্ডার ১৪ বলে ২৮ রানে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন। বাবার দেশের হয়ে খেলতে নেমে টানা দ্বিতীয়বার হয়েছেন ম্যাচসেরা। আগের ম্যাচে নামিবিয়াকে প্রথম জয় এনে দিয়েছিলেন নেদারল্যান্ডসের বিপক্ষে। টি-টোয়েন্টির এই অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার ডাচদের বিপক্ষে ৪০ বলে অপরাজিত ৬৬ ও বল হাতে নেন ১ উইকেট।

নামিবিয়াকে সুপার টুয়েলভে নিতে ভিসার পাশাপাশি বড় অবদান অধিনায়ক গেরহার্ড এরাসমাসের। ৪৯ বলে ৫৩ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। অধিনায়কের ব্যাটেই বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব পেরোয় নামিবিয়া। বাছাইয়ে প্রথম দুই ম্যাচ হেরে খাদের কিনারায় থাকা দল ঘুরে দাঁড়ায় এরাসমাসের নৈপুণ্যে। বাছাইপর্বের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানসংগ্রাহক তিনি। তিন ফিফটিতে করেন ২৬৮ রান।

দলের গুরুত্বপূর্ণ সময়ে আবারো জ্বলে উঠলেন এরাসমাস। দলীয় ২৫ রানে ওপেনার ক্রেইগ উইলিয়ামস ফেরার পর মাঠে নামেন তিনি। চাপের মুখে একপ্রান্ত আগলে দারুণ এক ইনিংস উপহার দেন। জেন গ্রিনের মন্থর ব্যাটিংয়ে একটা সময় রান রেট ৮-এর উপর চলে গেলে চাপ বাড়ে নামিবিয়ার। গ্রিন ফিরলে ক্রিজে আসেন ডেভিড ভিসা। ব্যাট হাতে ঝড় তুলে সমীকরণ সহজ করেন দেন তিনি। ২ ছক্কা ও ১ বাউন্ডারিতে আইরিশদের প্রথম রাউন্ডেই বিদায় করে দেন ভিসা।

শ্রীলঙ্কার কাছে হেরে আসর শুরু করা নামিবিয়া লিখলো প্রত্যাবর্তনের গল্প। লঙ্কানদের বিপক্ষে নামিবিয়া গুটিয়ে যায় ৯৬ রানে। সেই তারাই টানা দুই জয় তুলে নিলো অপেক্ষাকৃত শক্তিশালী দল নেদারল্যান্ডস ও আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর