× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২ ডিসেম্বর ২০২১, বৃহস্পতিবার , ১৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৬ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

অভিমান ভুলে লড়াইয়ের প্রস্তুতি

প্রথম পাতা

ইশতিয়াক পারভেজ, দুবাই (আরব আমিরাত) থেকে
২৩ অক্টোবর ২০২১, শনিবার

একটু এদিক-ওদিক হলেই বাছাই পর্ব থেকে ছিটকে পড়তো বাংলাদেশ। ভাগ্য ভালো। ওমানের সেই দুঃস্বপ্ন পেছনে ফেলে গতকালই টাইগাররা পৌঁছেছে তপ্ত আরব আমিরাতে। এখানেই সুপার টুয়েলভের লড়াইয়ে পাঁচ দলের বিপক্ষে মুখোমুখি হবে টাইগাররা। আইসিসি’র ভুলে বাংলাদেশকে খেলার কথা ছিল গ্রুপ ‘বি’ শীর্ষ দল হিসেবে। সেখানে প্রতিপক্ষ হিসেবে থাকতো ভারত, পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও নিউজিল্যান্ডের মত শক্তিশালী দল। কিন্তু ভুল সংশোধন হওয়াতে রানার্সআপ দল হিসেবে বদলে গেছে বাংলাদেশর প্রতিপক্ষও। এবার মাহমদুল্লাহ রিয়াদের দল মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ এর মতো দলগুলোর। বাংলাদেশ গ্রুপ রানার্স আপ হয়ে বিশ্বকাপের মূল লড়াইয়ে পা রাখার পর মূল আলোচনা চলছে গ্রুপ নিয়ে। সধারণভাবেই সংযুক্ত আরব আমিরাতের কন্ডিশনে ভারত-পাকিস্তান-আফগানিস্তানের গ্রুপকে এড়িয়ে যাওয়া একটু স্বস্তির বিষয়। অধিনায়ক মাহমদুল্লাহ রিয়াদও জানিয়েছেন নিজের স্বস্তির কথা। তিনি বলেন, ‘কিছুটা স্বস্তি তো অবশ্যই আছে। দল ভালো করছে। অবশ্যই আজকে ভালো লাগছে।’
কাল শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শারজাহতে স্থানীয় সময় দুপর দুইটায় মাঠে  নামবে বাংলাদেশ।  সুপার টুয়েলভে ১ নম্বর গ্রুপে বাংলাদেশের ৫ ম্যাচের সবকটি দুপুরে একই সময়ে মাঠে গড়াবে। আর এখানে বড় স্বস্তি বাংলাদেশ শিবিরের। কারণ রাতের ম্যাচে শিশির ভেজা বলে কাজ কঠিন হয়  বোলারদের। বিশেষ করে দলের মূল শক্তি স্পিনারদের  বল গ্রিপ করাই হয় ভীষণ কঠিন। তবে যতই সুবিধা হোক বাংলাদেশের জন্য চ্যালেঞ্জ কিন্তু কম নয়। অস্ট্রেলিয়াকে দেশের মাটিতে হারালেও সেই দলের কেউই নেই এই বিশ্বকাপে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বেশি শক্তি, দক্ষিণ আফ্রিকাও বলে কয়ে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিচ্ছে। আর বিশ্বকাপ শুরুর আগে লঙ্কার বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে হারও এখন বড় প্রশ্ন। তবে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ এসব নিয়ে ভাবছেন না। তিনি বলেন, ‘পাওয়ার হিটার কে আছে না আছে এগুলো পরে দেখা যাবে। আজকে ভালো খেলেছি দেখে মনে হচ্ছে (ভালো প্রস্তুতি হয়েছে)। সবার কাছে এ রকম মনে হবে আজকে। যদি এক ম্যাচে খারাপ হয় খুব বেশি করে সমালোচনা শুরু হয়ে যাবে। আমরা চেষ্টা করছি দল হিসেবে যেন ভালো পারফর্ম করতে পারি। সবার কমিটমেন্ট আজ শতভাগেরও বেশি ছিল, এটা সব সময়ই থাকে। ভালো কিছু করার জন্য দলের সবাই উদগ্রীব ছিল।’
মাসকাটে হার দিয়ে শুরু করলেও প্রথম রাউন্ডে  শেষ দুই ম্যাচে দারুণভাবে জয় তুলে নেয় বাংলাদেশ দল। বিশেষ করে শেষ ম্যাচে পাপুয়া নিউ গিনির বিপক্ষে রেকর্ড গড়েই জয় তুলে নেয় মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের দল। তবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড কর্মকর্তা  ও ভক্তদের সামালোচনায় বিষিয়ে উঠেছে দলের পরিবেশ। এর পরও বাংলাদেশ এখন প্রস্তুত সবকিছু পেছনে ফেলে সুপার ১২তে সব সমালোচনার জবাব মাঠেই দিতে।  এ বিষয়ে রিয়াদ বলেছেন, ‘শক্ত (মুখ) হওয়াটাই মনে হয় স্বাভাবিক। বিগত কয়েকদিনে আমরা মানুষ আমরাও ভুল করেছি। এ কারণে একেবারে ছোট করে ফেলা ঠিক না। এটা আমাদের দেশ, আমরা সবাই একসঙ্গে। আমি সব সময় বলি, যখন খেলি পুরো দেশ একসঙ্গে খেলি এবং আমাদের চেয়ে বেশি অনুভূতি কারও নেই। সমালোচনা অবশ্যই হবে, খারাপ খেলেছি। কিন্তু একেবারে ছোট করে ফেলা ঠিক না। এটা আমাদের সবারই খারাপ লেগেছে।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর