× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ১ ডিসেম্বর ২০২১, বুধবার , ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে সাবেকদের কথার লড়াই

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
২৩ অক্টোবর ২০২১, শনিবার

সংযুক্ত আর আমিরাতে আশি-নব্বইয়ের দশকে নিয়মিতই বসতো চার দলীয় কিংবা ত্রিদেশীয় সিরিজ। অবধারিতভাবেই এর অংশ থাকতো ভারত-পাকিস্তান। দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর দ্বৈরথ দেখতে উপচে পড়তো দর্শকরা। টেলিভিশন আর রেডিওতে এই ম্যাচের রোমাঞ্চে ডুবে থাকতেন বিশ্বের ক্রিকেটপ্রেমীরা। মধ্যপ্রাচ্যে ভারত-পাকিস্তান লড়াইয়ে বিরতি পড়েছিল। দীর্ঘ বিরতির পর ২০১৮ এশিয়া কাপে মুখোমুখি হয় দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী। মরুর দেশে তিন বছর পর আরেকটি পাক-ভারত লড়াই। ম্যাচটির আবেদন কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিয়েছে লড়াইটা বিশ্বমঞ্চে বলে। রোববার ২২ গজের উত্তাপ ছড়াবে কোহলি-বাবর আজমের টসের পর। তার আগে কথার লড়াইয়ে মেতেছেন দু’দেশের সাবেক ক্রিকেটাররা।

শোয়েব আখতার
সুযোগ পেলেই ভারতকে খোঁচা মারতে ছাড়েন না শোয়েব আখতার। এবারো অনেকটা খোঁচা দিয়েই পাক-ভারত লড়াই নিয়ে মন্তব্য শোয়েবের। সাবেক এই গতি তারকা বলেন, ‘অনেক চাপের ম্যাচ এটা। তবে পাকিস্তানের উপর কোনো চাপ নেই। কেননা গ্যালারিতে ভারতীয়দের উপস্থিতি বেশি থাকবে, ব্রডকাস্টারও ওদের। সুতরাং হারলেও আমাদের কিছু যায় আসে না।’ যদিও কথাটা মজা করেই বলা শোয়েবের। এরপর বললেন ম্যাচ নিয়ে নিজের ভাবনা, ‘যদি পাকিস্তান প্রথমে ব্যাট করে ১৮০’র আশেপাশে রান করতে পারে সেক্ষেত্রে একটা চাপ তৈরি হবে। যদিও পাকিস্তানের চেয়ে ভালোভাবে চাপ সামলাতে পারে ভারত। কিন্তু পাকিস্তানও চমক দেখাতে পারে।’

মোহাম্মদ কাইফ
ভারতীয় দলে মেন্টর হিসেবে রয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। বড় ম্যাচে চাপ সামলানোর অসাধারণ ক্ষমতা সাবেক সফল অধিনায়কের। ভারতের ড্রেসিংরুমে ধোনি বড় ভূমিকা রাখবেন বলে মত মোহাম্মদ কাইফের। পাকিস্তান ম্যাচে তো বটেই ভারত পুরো আসরে অন্যদের চেয়ে এগিয়ে বলে মনে করেন সাবেক এই ব্যাটার। এর কারণ হিসেবে কাইফ উল্লেখ করেছেন আইপিএলের কথা। তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি (পাকিস্তানের বিপক্ষে) ভারত এগিয়ে থাকবে। গত দুই মাস ভারতীয় ক্রিকেটাররা দুবাইতে খেলছেন। এই ম্যাচে ভারতকে পাকিস্তান হারিয়ে দিলে আমি অবাক হবো। যদিও টি-টোয়েন্টিতে যেকোনো কিছুই হতে পারে। এছাড়া ধোনির মেন্টর হিসেবে থাকাটা খুবই ইতিবাচক। সবকিছু বিবেচনায় বিশ্বকাপের সম্ভাব্য চ্যাম্পিয়ন হিসেবে ভারতই ফেভারিট।’

ইউনুস খান
২০০৯ আসরে পাকিস্তান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ জেতে ইউনুস খানের নেতৃত্বে। সেবার অবশ্য ভারতের মুখোমুখি হতে হয়নি পাকিস্তানের। ওয়ানডের বিশ্ব আসরের মতো টি-টোয়েন্টিতেও ভারতের কাছে পাকিস্তান হেরেছে সব ম্যাচে। ইউনুস খানের বিশ্বাস এবার বদলে যাবে চিত্র। তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানের দিক থেকে ভাবলে রেকর্ডটা এবার ৫-০ থেকে ৫-১ হওয়ার সম্ভাবনা বেশি। ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ সব সময় চাপের। যারা এই ম্যাচে ভালো করবে তারাই পরবর্তীতে বড় ক্রিকেটার হবে।’

সৌরভ গাঙ্গুলী
ভারতের সাবেক এই সফল অধিনায়কের কাঁধে এখন ভারতীয় ক্রিকেটের ভার। বিসিসিআই সভাপতি ভারতকে নিরঙ্কুশ ফেভারিট জানিয়ে বলেন, ‘আমার মনে হয় বিশ্ব আসরে ভারত (পাকিস্তানের বিপক্ষে) অপরাজিতই থাকবে। আগের ১২ ম্যাচে ভারতই জিতেছে। ব্যবধানটা এবার হবে ১৩-০। আমাদের দলে সবাই ম্যাচ উইনার। দুর্দান্ত একটা স্কোয়াড। আমি আশাবাদী, বিশ্বকাপের জন্য ভারতের গত ১০ বছরের অপেক্ষার অবসান হবে।’

রমিজ রাজা
ভারতের বিপক্ষে বাবর আজমরা জিতলে ব্লাঙ্ক চেক পাবে পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ড (পিসিবি)- এমন কথা আগেই জানিয়েছিলেন রমিজ রাজা। পিসিবি চেয়ারম্যান অবশ্য বাবরদের উপর প্রত্যাশার চাপ বাড়াচ্ছেন না। ভারতের বিপক্ষে ম্যাচকে ‘অন্য দশটা’ ম্যাচের মতো ভাবতে বলেছেন। রমিজ বলেন, ‘বিশ্বকাপের চাপ নিয়ে খেলার প্রয়োজন নেই। পুরো আসরে মনযোগ দাও। শুধু ভারত নিয়ে খুব বেশি ভাবনার প্রয়োজন নেই।’

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর