× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৯ নভেম্বর ২০২১, সোমবার , ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

লক্ষ্মীপুরে গণঅনশন ও অবস্থান কর্মসূচি পালিত

বাংলারজমিন

লক্ষ্মীপুর সংবাদদাতা
২৪ অক্টোবর ২০২১, রবিবার

সারা দেশে সংখ্যালঘুদের মন্দির, পূজামণ্ডপ ও বাড়িঘরে  হামলা, ভাঙচুরের ঘটনার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে লক্ষ্মীপুরে গণঅনশন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছে সনাতন ধর্মালম্বীরা। সকাল ৬টা থেকে লক্ষ্মীপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এ গণঅনশন ও অবস্থান কমূসচি শুরু করা হয়। কর্মসূচি  চলবে দুপুর বারোটা পর্যন্ত। হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের লক্ষ্মীপুর জেলা শাখার উদ্যোগে এ কমসূচি পালন করা হয়। এ সময় বক্তব্য রাখেন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান ঐক্য পরিষদের লক্ষ্মীপুর জেলা শাখার সভাপতি এডভোকেট রতন লাল ভৌমিক, সাধারণ সম্পাদক স্বপন দেবনাথ ও  জেলা পূজা উদ্‌যাপন পরিষদের সভাপতি বাবু শংকর মজুমদারসহ অনেকেই। কর্মসূচিতে অংশ নেন জেলা, উপজেলা, পৌরসভার বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা। জেলা পূজা উদ্‌যাপন পরিষদের সভাপতি বাবু শংকর মজুমদার ও  হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের জেলা  সভাপতি এডভোকেট রতন লাল ভৌমিক বলেন, লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জ ও রামগতিসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে সাম্প্রদায়িক উস্কানি দিয়ে মন্দিরে মন্দিরে তাণ্ডব চালিয়েছে। এদেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রয়েছে।
এদেশে সন্ত্রাসী চলবে না। এসব হামলা ও ভাঙচুর করে কখনো সফল হওয়া যাবে না। স্বাধীনতার পর থেকে সংখ্যালঘুদের বাড়িঘর, মন্দিরে হামলার ঘটনা ঘটেই চলছে। কিন্তু কোনো ঘটনার বিচার হয়নি বলে অভিযোগ করেন তারা। এ কারণে বারবার হামলার শিকার হতে হচ্ছে। কুমিল্লার ঘটনায় কোনো মুসলিম বা হিন্দু ধর্মের মানুষ এ কাজ করেনি। এটি করতে পারে না। এটি করেছে একটি গোষ্ঠী। ওই গোষ্ঠীকে চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানান। এসব হামলার ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না হলেও আগামীতে আরও কঠোর কর্মসূচির হুমকি দেন সংগঠনের নেতারা।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর