× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ৯ ডিসেম্বর ২০২১, বৃহস্পতিবার , ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩ হিঃ
রাহাত খুন

সিলেটে সড়ক অবরোধ, অধ্যক্ষের আন্দোলনের হুমকি

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার, সিলেট থেকে
২৫ অক্টোবর ২০২১, সোমবার

সিলেটে ছাত্রলীগকর্মী ও কলেজছাত্র আরিফুল ইসলাম রাহাতের খুনীরা ৪ দিনেও ধরা না 
পড়ায় ক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করেছে। গতকাল বেলা আড়াইটার দিকে দক্ষিণ সুরমা কলেজের শিক্ষার্থীরা ঢাকা-সিলেট মহাসড়ের প্রবেশ মুখ চণ্ডিপুলে সড়ক অবরোধ করে। এ সময় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। অবরোধস্থলের দু’পাশে কয়েকশ’ যানবাহন আটকা পড়ায় ওই এলাকায় তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়। অবরোধকালে শিক্ষার্থীরা জানিয়েছে, রাহাতের খুনিদের গ্রেপ্তার দাবিতে তারা আলটিমেটাম দিয়েছিলেন। কিন্তু এই সময়ের মধ্যে পুলিশ প্রশাসন আসামিদের গ্রেপ্তার করতে পারেনি। এ কারণে তারা সড়ক অবরোধ করেছেন। অবরোধের সময় তারা রাহাতের খুনিদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদানের দাবি জানায়।
এদিকে, অবরোধের খবর পেয়ে প্রায় আধাঘণ্টা পর দক্ষিণ সুরমা থানার ওসি কামরুল হাসান তালুকদারকে সঙ্গে নিয়ে সেখানে আসেন সিলেট-৩ আসনের এমপি হাবিবুর রহমান হাবিব। এ সময় তিনি শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করে বলেন- ওসি বলেছেন, শিগগিরই আসামিদের গ্রেপ্তার করা হবে। যদি আসামিদের গ্রেপ্তার করা না হয় তাহলে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিয়ে তিনি আন্দোলনে নামবেন বলে জানান। তার আগ পর্যন্ত সবাইকে শান্তি বজায় রেখে চলার আহ্বান জানান তিনি। এমপি হাবিবের কথায় শিক্ষার্থীরা অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয়। এদিকে, সিলেটের দক্ষিণ সুরমা সরকারি কলেজের এ বছরের এইচএসসি পরীক্ষার্থী আরিফুল ইসলাম রাহাত খুনের ঘটনায় জড়িতদের দ্রুততম সময়ে গ্রেপ্তার করার দাবি জানিয়েছেন কলেজের অধ্যক্ষ মো. শামছুল ইসলাম। গতকাল দুপুরে কলেজ ক্যাম্পাসে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। রাহাত খুনের ঘটনার প্রেক্ষিতে এই সাংবাদিক সম্মেলনের আয়োজন করে কলেজ কর্তৃপক্ষ। অধ্যক্ষ মো. শামছুল ইসলাম বলেন, ‘প্রকাশ্য দিবালোকে হত্যাকাণ্ড সংঘটিত হওয়ার পরও কোনো আসামিকে গ্রেপ্তার করতে না পারাটা দুঃখজনক। এর ফলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ভাবমূর্তিও সংকটের মুখে পড়বে। যদি অবিলম্বে আমাদের প্রিয় ছাত্র আরিফুল ইসলাম রাহাতের ঘাতকদের গ্রেপ্তার করে বিচারের মুখোমুখি করা না হয়, তাহলে দক্ষিণ সুরমা কলেজের সকল শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারীসহ শিক্ষার্থীরা মাঠে নামবে। গড়ে তোলা হবে দুর্বার আন্দোলন। আমাদের দাবি একটাই, আর সেটি হলো ঘাতকদের দ্রুত গ্রেপ্তার করতে হবে। রাজপথে শিক্ষার্থীরা নেমে গেলে পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নিতে পারে। এর সকল দায়ভার আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকেই বহন করতে হবে।’ অধ্যক্ষ জানান, রাহাতের রুহের মাগফেরাত কামনায় আগামী ৩০শে অক্টোবর দোয়া মাহফিল করা হবে। একইসঙ্গে রাহাতের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদানের কথাও জানান তিনি। বৃহস্পতিবার সিলেটের দক্ষিণ সুরমা কলেজ ফটকে ছাত্রলীগকর্মী সাদী ও তার সহযোগীরা কলেজছাত্র রাহাতকে ছুরিকাঘাত করে খুন করে। শুক্রবার রাতে তার চাচা শফিকুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলাটি করেছেন। কিন্তু গতকাল পর্যন্ত কোনো আসামিকেই পুলিশ গ্রেপ্তার করতে পারেনি। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, কলেজের একাডেমিক কাউন্সিলের সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান, কলেজের শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক কাজরী রানী ধর, শিক্ষক সাব্বির আহমদ, আশরাফুল হক, রাহেনা হক, ছালমা ইয়াছমিন, মতিলাল দাশ, মুহিবুর রহমান, আতাউর রহমান, সুভাষ চন্দ্র সাহা, জয়নুল ইসলাম, পলাশ রঞ্জন দাশ, ময়নুল হক, শ্যামলী চক্রবর্তী, নাফিস সাকিনা, কানিজ ফাতেমা, শুকরিয়া জাহান, ফাতেমা খানম, শিল্পী মালাকার, মাহমুদা আক্তার, শাহরিয়ার খান, গিলমান আলী, আতাউর রহমান ভূঞা প্রমুখ।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর