× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ১ ডিসেম্বর ২০২১, বুধবার , ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫ রবিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

পাকিস্তানকে কমপক্ষে ৩০০ কোটি ডলার সহায়তা দিচ্ছে সৌদি আরব

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) অক্টোবর ২৭, ২০২১, বুধবার, ১২:৩৬ অপরাহ্ন

পাকিস্তানকে বিপুল পরিমাণ আর্থিক সহায়তা দিতে রাজি হয়েছে সৌদি আরব। এর মধ্যে রয়েছে প্রায় ৩০০ কোটি ডলারের নিরাপদ আমানত। তেল আমদানির ১২০ কোটি থেকে ১৫০ কোটি ডলার পাওনা পরিশোধ বিলম্বিত করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তারা। পাকিস্তান সরকারের একজন সিনিয়র কর্মকর্তা অনলাইন ডন’কে বলেছেন, এ সপ্তাহে সৌদি আরব সফরে যান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তার এ সফরেই এ বিষয়ে চুক্তি হয়েছে। আজ বুধবার সংবাদ সম্মেলন করে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেয়ার কথা প্রধানমন্ত্রী অর্থ ও রাজস্ব বিষয়ক উপদেষ্টা শওকত তারিন ও জ্বালানিমন্ত্রী হাম্মাদ আজহারের। সৌদি আরবের সহায়তার বিষয়ে মঙ্গলবার মধ্যরাতে টুইট করে নিশ্চিত করেছেন পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী। তিনি টুইটে লিখেছেন- পাকিস্তানকে সহায়তা হিসেবে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে নিরাপদ জামানত হিসেবে ৩০০ কোটি ডলার দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে সৌদি আরব। এ বছরজুড়ে ১২০ কোটি ডলারের পেট্রোলিয়ামজাত পণ্য দেয়ার ক্ষেত্রে পাওনা পরিশোধেও সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে। মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়েছে, পাকিস্তানের একাউন্টে অবিলম্বে ৩০০ কোটি ডলার পাঠিয়ে দেবে সৌদি আরব। ২০২৩ সালের অক্টোবরে আইএমএফের কর্মসূচি সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত এই ঋণ চলতেই থাকবে। এ ছাড়া পাকিস্তানকে বছরে ১৫০ কোটি ডলার মূল্যের অশোধিত তেল সরবরাহ দেবে সৌদি আরব। এর ফলে যে পাওনা হবে সৌদি আরবের তা বিলম্বে দেয়া যাবে। এর আগে ২০১৮ সালে পাকিস্তানকে ৩০০ কোটি ডলার ক্যাশ অর্থ দিয়েছিল সৌদি আরব। এই অর্থে পাকিস্তানে একটি তেল বিষয়ক স্থাপনা গড়ে তোলার কথা ছিল। কিন্তু পরে তা নিয়ে ইসলামবাদের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি হলে ২০০ কোটি ডলার পরিশোধ করে ইসলামাবাদ।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর