× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২২ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার , ৮ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৮ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

সিটির কাছে হেরেও খুশি পচেত্তিনো

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
২৬ নভেম্বর ২০২১, শুক্রবার

প্রথমার্ধে চললো ম্যানচেস্টার সিটির রাজত্ব। আক্রমণে ধার দেখালেও ফিনিশিংয়ে বারবার খেই হারাচ্ছিল পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা। উল্টো প্রথমার্ধের শুরুতে এগিয়ে যায় পিএসজি। সেই ধাক্কা দারুণভাবে সামাল দেন স্টার্লিং-জেসুসরা। বুধবার রাতে চ্যাম্পিয়নস লীগের ম্যাচটিতে পিএসজিকে ২-১ গোলে হারায় টিম স্কাই ব্লুজ। দল হারলেও খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট পিএসজি কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনো।
তারকায় ঠাসা দল নিয়েও প্রথমার্ধে ম্যান সিটির রক্ষণভাগের পরীক্ষা নিতে পারেনি পিএসজি বরং রদ্রি, স্টার্লিং, রিয়াদ মাহরেজরা ভীতি ছড়ান সফরকারীদের ডি-বক্সের আশপাশে। দ্বিতীয়ার্ধে ধারার বিপরীতে গোল করে দলকে এগিয়ে নেন কিলিয়ান এমবাপ্পে। ম্যাচশেষে আরএমসি স্পোর্টসকে দেয়া সাক্ষাৎকারে পচেত্তিনো বলেন, ‘ম্যাচে দুই দলের পারফরম্যান্সে স্পষ্ট পার্থক্য ছিল।
আমরা দ্বিতীয়ার্ধে ভালো করেছি, ছেলেরা ভালো খেলেছে (প্রথমার্ধের তুলনায়)। ম্যাচে সমতা ফেরার পর আমাদের প্রয়োজন ছিল কিছু পরিবর্তন আনা। দ্বিতীয় গোল খাওয়ার ক্ষতি পূরণ করতে পারিনি আমরা।’ পচেত্তিনো বলেন, ‘বিশেষ করে দ্বিতীয়ার্ধটা স্মরণ করবো আমি, যেমনটা চেয়েছিলাম আমি। ছেলেদের খেলায় আমি খুশি।’
পচেত্তিনোর খুশির আরও একটি কারণ রয়েছে। ম্যান সিটির বিপক্ষে হারলেও পিএসজি উঠে গেছে আসরের নক আউট পর্বে। গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে পরের ধাপে পা রেখেছে লা প্যারিসিয়ানরা। পচেত্তিনো বলেন, ‘মৌসুমের শুরুর অবস্থা বিবেচনা করে নক আউট পর্বের জন্য নির্বাচিত হয়ে ভালো লাগছে।’
মূলত আরবি লাইপজিগের কাছে ক্লাব ব্রুজের ৫-০ গোলের বিশাল পরাজয়ই পিএসজিকে দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠতে সাহায্য করেছে। এই হারে পাঁচ ম্যাচে পিএসজির সংগ্রহ ৮ পয়েন্ট। ১২ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে নক আউট পর্বে উঠেছে ম্যান সিটি। পাঁচ ম্যাচে সমান ৪ পয়েন্ট নিয়ে নকআউট পর্বের আশা শেষ লাইপজিগ-ব্রুজের।
এদিকে গ্রুপ পর্বের বাধা টপকালেও দলের হারে অসন্তুষ্ট পিএসজি ডিফেন্ডার প্রিসনেল কিম্পেবে। তিনি বলেন, ‘নিশ্চিতভাবেই আমাদের প্রথম লক্ষ্য ছিল পরের ধাপের জন্য নির্বাচিত হওয়া। কিন্তু এই হারে আমরা হতাশ।’ কিম্পেবে বলেন, ‘আমরা জানি যে, আমরা ভালো করতে পারি। আমরা দারুণ প্রতিযোগী এবং হারতে পছন্দ করি না।’
৫০তম মিনিটে পিছিয়ে পড়ার পর ম্যাচে ফিরতে বেশি সময় নেয়নি সিটিজেনরা। ৬৩তম মিনিটে ম্যাচে সমতা টানেন রাহিম স্টার্লিং। বাঁ থেকে সতীর্থের বাড়ানো ক্রসে বাইলাইনের কাছ থেকে লাফিয়ে নেয়া ভলিতে গোলমুখে বল বাড়ান কাইল ওয়াকার। গ্যাব্রিয়েল জেসুস টোকা দিতে ব্যর্থ হলেও পেছনে থাকা স্টার্লিং লক্ষ্যভেদ করতে ভুল করেননি। ৭৬তম মিনিটে জয় নিশ্চিত করেন জেসুস। ম্যাচশেষে ব্রাজিলিয়ান তারকা বলেন, ‘আমাদের দলে এমন অনেক খেলোয়াড় রয়েছে যারা দলকে সহযোগিতা করতে পারে।’
তারকায় ঠাসা দল পিএসজি। আক্রমণভাগে রয়েছে বিশ্বসেরা ত্রয়ী মেসি-এমবাপ্পে-নেইমার। কিন্তু ভক্ত-সমর্থকদের প্রত্যাশা রক্ষা করে একই সঙ্গে জ্বলে উঠতে পারেননি তারা। সিটি কোচ পেপ গার্দিওলা বলেন, ‘তাদের দলে অনেক মান সম্পন্ন খেলোয়াড় রয়েছে। পুরো ম্যাচে আমরা চেষ্টা করেছি তাদের গোলের থেকে অনেক দূরে রাখতে।’
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর