× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, মঙ্গলবার , ১১ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

জাহাঙ্গীর বরখাস্ত

প্রথম পাতা

স্টাফ রিপোর্টার
২৬ নভেম্বর ২০২১, শুক্রবার

গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। গতকাল স্থানীয় সরকার বিভাগ এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে। এতে জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অর্থ আত্মসাৎ, ক্ষমতার অপব্যবহারসহ বেশকিছু গুরুতর অভিযোগ আনা হয়েছে। এসব অভিযোগের তদন্ত কার্যক্রম শুরুর পাশাপাশি মেয়র পদ থেকে জাহাঙ্গীর আলমকে অপসারণের প্রক্রিয়া শুরুর কথা বলা হয়েছে প্রজ্ঞাপনে। এ ছাড়া অপর এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে গাজীপুর সিটি করপোরেশনে মেয়র প্যানেল গঠন করেছে স্থানীয় সরকার বিভাগ। তিনদিনের মধ্যে জাহাঙ্গীর আলমকে প্যানেল মেয়রের কাছে দায়িত্ব হস্তান্তর করতে বলা হয়েছে। প্রজ্ঞাপন জারির আগে বৃহস্পতিবার বিকালে স্থানীয় সরকার বিভাগের মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম সচিবালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। বলেন, গাজীপুরের মেয়র জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে বেশ কিছু অভিযোগ মন্ত্রণালয়ে দাখিল হয়েছে।
সেগুলোকে পর্যালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে তা তদন্তের জন্য গ্রহণ করা হয়েছে। যেহেতু আইন অনুযায়ী কোনো নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি বিশেষ করে মেয়রের বিরুদ্ধে যদি অভিযোগ আসে এবং সে অভিযোগ তদন্ত বা নিষ্পত্তির জন্য আমলে নেয়া হয়, তাহলে আইন অনুযায়ী তাকে সাময়িক বরখাস্ত করার নিয়ম আছে। আইনে এরকম বাধ্যবাধকতা আছে। সে কারণে গাজীপুরের বর্তমান মেয়র জাহাঙ্গীর আলমকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে অভিযোগগুলো কী কী- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন ধরনের অভিযোগ রয়েছে। কোথাও অবৈধভাবে জায়গা দখল করা, জনগণের স্বার্থপরিপন্থি কাজ করা এবং কেউ কেউ অভিযোগ করেছেন যে, তাকে সেখানে অবকাঠামো ক্ষতিপূরণ না দিয়ে জোর-জবরদস্তি করা, এসব অভিযোগ আছে। আইন অনুযায়ীই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, সেখানে মেয়রদের প্যানেল গঠন করা হয়েছে। জ্যেষ্ঠতায় এক নম্বরে যিনি আছেন তিনি মেয়র হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন, তার ওপরে দায়িত্ব হস্তান্তর করা হবে। মেয়রের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলোকে কেন্দ্র করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি করা হয়েছে বলেও জানান তাজুল ইসলাম। তিনি বলেন, মেয়রের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু হয়েছে। তদন্ত করে যেগুলো পাবো, সে অনুযায়ী তাকে শোকজ করা হবে। সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, যদি তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগগুলো প্রমাণিত হয়, তাহলে তাকে চূড়ান্তভাবে অপসারণ করা হবে। পরে স্থানীয় সরকার বিভাগ জাহাঙ্গীর আলমের সাময়িক বহিস্কারের বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে। সিটি করপোরেশন-২ শাখার উপ-সচিব মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমের বিরুদ্ধে ভুয়া টেন্ডার, আরএফকিউ, বিভিন্ন পদে অযৌক্তিক লোকবল নিয়োগ, বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে ভুয়া বিল ভাউচারের মাধ্যমে ও একই কাজ বিভিন্ন প্রকল্প দেখিয়ে অর্থ আত্মসাৎ এবং প্রতিবছর হাট-বাজার ইজারার অর্থ যথাযথভাবে নির্ধারিত খাতে জমা না রাখাসহ নানাবিধ অভিযোগ উত্থাপিত হয়েছে। ভূমি দখল ও ক্ষতিপূরণ ব্যতীত রাস্তা প্রশস্তকরণ সংক্রান্ত প্রাপ্ত অভিযোগটির বিষয়ে সিটি করপোরেশনের মতামত জানতে চাওয়া হলে অদ্যাবধি কোনো মতামত প্রদান করা হয়নি। বর্ণিত অভিযোগসমূহ, ক্ষমতার অপব্যবহার, বিধিনিষেধ পরিপন্থি কার্যকলাপ, দুর্নীতি ও ইচ্ছাকৃত অপশাসনের শামিল যা সিটি করপোরেশন আইন, ২০০৯ এর ধারা ১৩ (১) (ঘ) অনুযায়ী অপসারণযোগ্য অপরাধ। ইতিমধ্যে বর্ণিত অভিযোগসমূহ তদন্ত কার্যক্রম শুরু করার মাধ্যমে সিটি করপোরেশন আইন, ২০০৯ এর ১৩ ধারামতে অপসারণের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। সিটি করপোরেশন আইন-২০০৯ এর ধারা ১২ (১) অনুযায়ী সুষ্ঠু তদন্ত কার্যক্রম পরিচালনার স্বার্থে মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমকে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের মেয়রের পদ থেকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো। এই আদেশ প্রাপ্তির তিনদিনের মধ্যে সাময়িক বরখাস্তকৃত মেয়র ক্রমানুসারে মেয়র প্যানেলের জ্যেষ্ঠ সদস্যদের নিকট স্বীয় দায়িত্ব হস্তান্তর করবেন। অপর এক আদেশে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের তিনজন কাউন্সিলরের সমন্বয়ে একটি মেয়র প্যানেল গঠন করা হয়েছে। প্যানেলের সদস্যরা হলেন, ৪৩ নং সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর আসাদুর রহমান কিরণ, ৫২ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আব্দুল আলীম মোল্লা এবং সংরক্ষিত ১০ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আয়েশা আক্তার। প্রসঙ্গত, শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে ১৯শে নভেম্বর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির বৈঠকে জাহাঙ্গীর আলমকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে জাহাঙ্গীরের কিছু বিতর্কিত মন্তব্যসংবলিত ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পরই ৩রা অক্টোবর জাহাঙ্গীর আলমকে শোকজ করা হয়েছিল। জাহাঙ্গীর আলম গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। গতকাল মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক করা হয়েছে মো. আতাউল্লাহ মণ্ডলকে। তিনি মহানগর কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। দল থেকে বহিষ্কারের পরপরই জাহাঙ্গীর আলমকে মেয়র পদ থেকে বহিষ্কারের বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হচ্ছিল। ১৯শে নভেম্বরের বৈঠক শেষে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার বিষয় বিবেচিত হচ্ছে। এ বিষয়ে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়কে বলা হয়েছে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর