× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৩ জানুয়ারি ২০২২, রবিবার , ৯ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৯ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

অজিদের টেস্ট অধিনায়ক প্যাট কামিন্স

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
২৬ নভেম্বর ২০২১, শুক্রবার

দুই সপ্তাহও বাকি নেই, শুরু হবে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডের মধ্যকার ঐতিহ্যের লড়াই অ্যাশেজ সিরিজ। এর আগে নিজেদের অধিনায়ক হারিয়েছে অজিরা। সেক্সটিংয়ের অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন টিম পেইন, খেলবেন না সিরিজটিও। অল্প সময়ের মধ্যে নতুন অধিনায়ক খোঁজা চ্যালেঞ্জিংই ছিল ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার (সিএ) জন্য। সহজ সমাধান হিসেবে সহ-অধিনায়ক প্যাট কামিন্সের কাঁধে পূর্ণ দায়িত্ব সমর্পণ করেছে সিএ। আর এর মধ্য দিয়ে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট ইতিহাসে প্রথম কোনো বোলার পেলেন অধিনায়কত্ব।

কামিন্স অস্ট্রেলিয়ার ৪৭তম টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে অ্যাশেজ সিরিজে নেতৃত্ব দেবেন। প্রায় দু’বছর ধরে তিনি অজিদের ডেপুটি ক্যাপ্টেনের দায়িত্ব পালন করেছেন।
দলের দায়িত্ব পেয়ে কামিন্স বলেন, ‘সামনেই অ্যাশেজ সিরিজ। তার আগে অস্ট্রেলিয়ার টেস্ট দলের অধিনায়ক হতে পেরে আমি সম্মানিত।
আশা করব গত কয়েক বছরে টিম (পেইন) যেভাবে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছে, আমিও সেটা পারব।’

অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনে আগামী ৮ই ডিসেম্বর শুরু হবে অ্যাশেজ সিরিজ। আগামী বছরের ১৪ই জানুয়ারি শেষ ম্যাচ খেলবে দুই দল। ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে পূর্ণ শক্তির দল নিয়েই খেলতে নামবে। সিরিজটি নিয়ে প্রত্যাশার কথা জানিয়ে কামিন্স বলেন, ‘এই দলে আমি, স্টিভসহ অনেক সিনিয়র ক্রিকেটার রয়েছে। অনেক নতুন প্রতিভাও রয়েছে। আমরা শক্তিশালী দল হিসেবেই খেলব। এটা একটা অপ্রত্যাশিত সুযোগ (অধিনায়কত্ব)। এই সুযোগ পাওয়ার জন্য আমি কৃতজ্ঞ।’

অধিনায়ক নির্বাচন প্রক্রিয়ার দায়িত্বে ছিল পাঁচ সদস্যের প্যানেল। সেই কমিটিতে ছিলেন দুই নির্বাচক জর্জ বেইলি, টনি ডোডমেড এবং সিএর দুই কর্তা মেল জোন্স ও রিচার্ড ফ্রেউডেনস্টাইন।

টিম পেইন নেতৃত্ব ছাড়ার পর অধিনায়কের দৌড়ে কামিন্সের সঙ্গে ছিলেন অস্ট্রেলিয়াকে ৩৪ টেস্টে নেতৃত্ব দেয়া স্টিভ স্মিথও। নেতৃত্ব না পেলেও কামিন্সের ডেপুটি হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন অস্ট্রেলিয়ার এই অভিজ্ঞ ব্যাটার।
সহ-অধিনায়ক হওয়ার পর স্মিথ বলেন, ‘দায়িত্ব পেয়ে খুশি। কামিন্সকে সব রকসভাবে সাহায্য করব। দীর্ঘদিন ওর সঙ্গে খেলেছি। আমরা পরস্পরের সম্পর্কে জানি। আমরা খুব ভাল বন্ধুও। আপাতত আমাদের নজর অ্যাশেজে।’
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর