× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, মঙ্গলবার , ১১ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

তুরস্ক: নারী বিক্ষোভকারীদের উপর রাবার বুলেট ও টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ

বিশ্বজমিন

মানবজমিন ডেস্ক
(১ মাস আগে) নভেম্বর ২৬, ২০২১, শুক্রবার, ৫:২৬ অপরাহ্ন

নারী বিক্ষোভকারীদের টার্গেট করে টিয়ার গ্যাস ও রাবার বুলেট ছুঁড়েছে তুরস্কের পুলিশ। আন্তর্জাতিক নারীর উপর সহিংসতা বিরোধী দিবসে দেশটিতে র‍্যালি বের করেছিল নারী অধিকারকর্মীরা। তারা ইস্তাম্বুলসহ প্রধান শহরগুলোতে মিছিল ও সমাবেশ করে। সেখান থেকে তুরস্ককে ‘ইস্তাম্বুল কনভেনশনে’ পুনরায় যোগ দেয়ার দাবি জানানো হয়। তুরস্কসহ বিশ্বের ৪৫ দেশ নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিতের লক্ষ্যে এই ল্যান্ডমার্ক চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছিল। ২০১১ সালে ইস্তাম্বুলে এই চুক্তিটি স্বাক্ষরিত হয়। তুরস্ক প্রথম রাষ্ট্র হিসাবে এতে স্বাক্ষর করেছিল। আবার এ বছরের জুলাইতে তুরস্কই প্রথম রাষ্ট্র হিসাবে এই চুক্তি থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেয়।
দেশটির প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েফ এরদোগান দাবি করেন, এই গ্রুপটি এখন সমকামিতাকে উৎসাহিত করছে, তাই তিনি তুরস্ককে এ থেকে বের করে নিয়ে এসেছেন।

আবারও ওই চুক্তিতে তুরস্ককে ফিরিয়ে নিতেই ২৫ নভেম্বর আন্তর্জাতিক নারী সহিংসতা প্রতিরোধ দিবসে রাস্তায় নামেন অধিকারকর্মীরা। এর আগেও মার্চ ও জুনে বড় সমাবেশ করেছিল তারা। এরদোগান তখন দাবি করেন, তুরস্কে যে আইন আছে তাই নারীর সুরক্ষার জন্য যথেষ্ট। কিন্তু এর সঙ্গে একমত নন বিক্ষোভকারীরা। আল-জাজিরার খবরে জানানো হয়েছে, শুধুমাত্র এ বছরই ২৮৫ নারীকে হত্যা করা হয়েছে তুরস্কে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর