× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, মঙ্গলবার , ১১ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

কলকাতা কথকতা / তৃণমূলের পুর প্রার্থী তালিকায় উত্তরাধিকার তন্ত্র, দল বলছে- নতুন প্রজন্মের আগমন

কলকাতা কথকতা

জয়ন্ত চক্রবর্তী, কলকাতা
(১ মাস আগে) নভেম্বর ২৭, ২০২১, শনিবার, ১০:৩৫ পূর্বাহ্ন

প্রায় পাঁচ ঘণ্টার বৈঠক। ভোট কুশলী প্রশান্তকিশোরের ফর্মুলা। নেতাদের সুপারিশ। বাদবিতণ্ডা- এই সবের পর শুক্রবার তৃণমূল কংগ্রেসের পূর্ণাঙ্গ প্রার্থী তালিকা প্রকাশিত হল শুক্রবার প্রায় রাত সাড়ে ১০টা নাগাদ। এই তালিকায় যেমন এক পদ এক ব্যাক্তি এই নীতি অনুসরণ না করেই পুর অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে ছয় বিধায়ক ববি হাকিম, অতীন ঘোষ, দেবাশীষ কুমার, দেবব্রত মজুমদার, রত্না চট্টোপাধ্যায় ও পরেশ পালকে প্রার্থী করা হয়। ঠিক তেমনই সাংসদ শান্তনু সেনকে বাদ দিলেও অপর সাংসদ মালা রায়কে প্রার্থী করা হয়।

তৃণমূলের প্রার্থীতালিকায় উত্তরাধিকার তন্ত্র প্রতিষ্ঠা পেয়েছে। মন্ত্রী-বিধায়ক-পুরপিতাদের পুত্র-কন্যা, স্ত্রী, ভাতৃবধূ, বোনেরা এই তালিকায় স্থান পেয়েছেন।
যেমন, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এর পরে এই প্রথম মমতা তাঁর নিজের ওয়ার্ড তিয়াত্তর এ দীর্ঘদিনের পুরপিতা রতন মালাকারের জায়গায় আনলেন ভাইয়ের স্ত্রী কাজরী বন্দ্যোপাধ্যায়কে। চার নম্বর ওয়ার্ডে প্রার্থী হলেন মন্ত্রী শশী পাঁজার মেয়ে পূজা পাঁজা। বিধায়ক স্বর্ণকমল সাহার ছেলে সন্দীপন সাহা প্রার্থী হলেন আটান্ন নম্বর ওয়ার্ডে। প্রয়াত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় এর বোন তনিমা চট্টোপাধ্যায় প্রার্থী হলেন আটষট্টি নম্বর ওয়ার্ডে। একশো ষোলো ও একশো সতেরো নম্বর ওয়ার্ডে প্রার্থী হয়েছেন পুরপিতা তারক সিং এর পুত্র কন্যা।

কৃষ্ণা সিং ও অমিত সিং। একশো এক নম্বর ওয়ার্ডে পুরসভার প্রাক্তন মেয়র ও মেয়রের পরিত্যক্ত স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়কে প্রার্থী করা হয়েছে। দু নম্বর ওয়ার্ডে প্রার্থী হয়েছেন সাংসদ শান্তনু সেনের স্ত্রী কাকলি সেন। মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচাৰ্য এর পুত্র সৌরভ বসু ভট্টাচাৰ্যও প্রার্থী হয়েছেন। বাদ পড়া কাউন্সিলর সমেত বিরোধীরা বলছেন- উত্তরাধিকার তন্ত্রে স্বজনপোষণ হয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেস বিষয়টিকে সেই ভাবে দেখতে চায়না। তারা বলছে- তৃণমূলের পরের প্রজন্ম আসছে রাজনীতিতে। নতুন মুখকে তুলে আনা হচ্ছে। তৃণমূলের প্রার্থী তালিকায় আছেন প্রাক্তন আর এস পি মন্ত্রী ক্ষিতি গোস্বামীর কন্যা বসুন্ধরা গোস্বামী ও সি এ বির প্রাক্তন কর্তা বিস্বরূপ দে।

বাদ পড়েছেন ৩৯ জন। এঁদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য, স্মিতা বক্সী, সঞ্চিতা মন্ডল, সুদর্শনা মুখোপাধ্যায়, ইকবাল আহমেদ সিনিয়র, রতন মালাকার, রতন দে, মঞ্জুশ্রী মজুমদার প্রমুখ। তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হতেই বাদ পড়াদের ক্ষোভ এবং নতুনদের আশার বাণী শোনা যাচ্ছে। যাঁরা এলেন তাঁদের অনেকেই আনকোরা, কারও কারও আবার রাজনীতির পালিশ আছে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর