× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ১৭ জানুয়ারি ২০২২, সোমবার , ৩ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

‘একটি পরিচ্ছন্ন আধুনিক পৌরসভা গড়তে চাই’

বাংলারজমিন

চাঁপাই নবাবগঞ্জ প্রতিনিধি
২৯ নভেম্বর ২০২১, সোমবার

চাঁপাই নবাবগঞ্জ পৌরসভাকে আধুনিক, সুন্দর, মাদক ও সন্ত্রাসমুক্ত একটি বাসযোগ্য উন্নত শহর হিসেবে গড়ে তুলতে চাই। কাজ করবো জনগণের কল্যাণ ও এলাকার উন্নয়নে। চাঁপাই নবাবগঞ্জের নাগরিকদের উন্নত সেবা নিশ্চিতের মাধ্যমে পৌরসভাকে নতুন রুপে গড়ে তোলা আমার স্বপ্ন। আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী জেলা যুবলীগের সভাপতি সামিউল হক লিটন মানবজমিনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, আমি নির্বাচিত হলে সবাইকে নিয়েই চাঁপাই নবাবগঞ্জের উন্নয়নে কাজ করবো। আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে একটি নবসূচনা করবো এবং পৌরবাসীর প্রত্যাশিত যে শহর, তেমনি একটি উন্নত শহর গড়ার লক্ষ্যে সততা, নিষ্ঠা এবং একাগ্রতার সঙ্গে কাজ করবো। যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন ও উন্নত ড্রেনেজ ব্যবস্থা গড়ে তোলা হবে। পৌরবাসীর স্বার্থকে প্রাধান্য দিয়ে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন মেয়র পদে মনোনয়ন প্রত্যাশী সামিউল হক লিটন।
তিনি বলেন, নাগরিকদের চাহিদা অনুযায়ী সব ধরনের সেবা নিশ্চিত করতে চাই। চাঁপাই নবাবগঞ্জ পৌরসভার মানুষ এখনো অবহেলিত। তাদের মৌলিক সুবিধাগুলো তারা এখনো পাচ্ছে না। জনগণ যদি আমাকে নির্বাচিত করে তাহলে আমি এলাকাবাসীকে সঙ্গে নিয়ে জনগণের কল্যাণে কাজগুলো করতে পারবো। পৌরবাসীর কল্যাণে একটা পরিকল্পনা করতে চাই যাতে টেকসই শহর উন্নয়নের মাধ্যমে জনগণের চাহিদা পূরণ হয়। সর্বোপরি দুর্নীতিমুক্ত প্রাতিষ্ঠানিক সেবা, সামাজিক ও মানবিক মূল্যবোধ, মানবাধিকার রক্ষা এবং ঐতিহ্য ও আধুনিকতার সম্মিলনে মাদকমুক্ত, দূষণমুক্ত, মশা ও জলাবদ্ধতা মুক্ত, ভারসাম্যমূলক ও পরিবেশ সম্মত, বসবাসযোগ্য এক আধুনিক শহর গড়ার কথা বলেন সামিউল হক লিটন। তিনি আরও বলেন, পরিকল্পনায় রয়েছে নাগরিক সেবা, নাগরিক বিনোদন, যোগাযোগ ব্যবস্থার টেকসই উন্নয়ন, প্রাকৃতিক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা। এছাড়াও গণশুনানির মাধ্যমে  পৌরবাসীর সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে তাদের মতামতের ভিত্তিতে হোল্ডিং ট্যাক্স নির্ধারণ করা হবে।  জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন সনদ পেতে যে জটিলতা রয়েছে সেটিরও সমাধান করা হবে। তার মতে, শুধু অবকাঠামোগত উন্নয়নই যথেষ্ট নয়। তাই উন্নয়নের সঙ্গে সুশাসনও নিশ্চিত করতে চান তিনি। সামিউল হক লিটন বলেন, আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি পৌরবাসী সেবা ও উন্নয়নের স্বার্থে আমার পাশে থাকবেন। ৩০শে নভেম্বর তার মোবাইল ফোন প্রতীকে ভোট দিবেন।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর