× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২১ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার , ৭ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

সেট টপ বক্স সহজলভ্য করতে কাজ করছে সরকার

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার
৩০ নভেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার

গ্রাহকদেরকে কিস্তিতেও যাতে সেট টপ বক্স কেনার সুযোগ দেয়া হয়, সেজন্য ক্যাবল অপারেটরদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তথ্য ও সমপ্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। সোমবার সচিবালয়ে ক্যাবল অপারেটরদের সঙ্গে বৈঠকের পর তথ্যমন্ত্রী সাংবাদিকদের এ কথা জানান। মন্ত্রী বলেন, সব ধরনের গ্রাহকেরা যাতে সহজে বিভিন্ন মানের সেট টপ বক্স পান, সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। প্রয়োজন ও সামর্থ্য অনুযায়ী যাতে সেট টপ বক্স কিনতে পারেন, সে বিষয়েও আলোচনা হয়েছে। এককালীনের পাশাপাশি কিস্তিতেও যাতে সেট টপ বক্স কেনার সুযোগ থাকে, সেটি নিয়েও আলোচনা করেছি। সরকারি কোনো সংস্থার মাধ্যমে দেশেও এটি উৎপাদন করা যায় কিনা, সেটি নিয়েও আলোচনা হয়েছে বলে জানান তিনি। মন্ত্রী আরও বলেন, ঢাকা ও চট্টগ্রাম শহরে ক্যাবল অপারেটিং পদ্ধতি ডিজিটাল করার সময় বেঁধে দেয়া হয়। অগ্রগতি কতোটুকু সেটি পর্যালোচনা করেছি।
ক্যাবল অপারেটররা বলেছেন, সারা দেশে গ্রাহকদের মধ্যে সচেতনতা তৈরি হয়েছে। ফিড অপারেটররাও সেট টপ বক্স কেনার জন্য বিনিয়োগ করেছে। ক্যাবল অপারেটিং পদ্ধতি ডিজিটালাইজড হলে গ্রাহক ভালোমতো টেলিভিশন দেখতে পারবেন জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, বছরে ১৫০০-১৮০০ কোটি টাকা সরকার রাজস্ব হারাচ্ছে। সব গ্রাহকদের ডিজিটালাইজড করতে পারলে এই টাকা সরকার রাজস্ব পাবে। তিনি বলেন, এরইমধ্যে হাইকোর্টে রিট করে ৩০শে নভেম্বরের মধ্যে ঢাকা ও চট্টগ্রাম শহরের ক্যাবল নেটওয়ার্ক ডিজিটাল করা নিয়ে স্থগিতাদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারে মন্ত্রণালয় কাজ করছে, আশা করছি, স্থগিতাদেশ উঠে যাবে। আদেশ উঠে গেলে আমরা আবার বসে সময় কতোটুকু বাড়ানো যায়, সেটা ঠিক করবো। গ্রাহক পর্যায়ে প্রস্তুতি দেখে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর