× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৭ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার , ১৩ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

শ্রাবন্তীর তৃণমূলে যোগ দেয়ার ইঙ্গিত

বিনোদন

বিনোদন ডেস্ক
৩০ নভেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার

গত ১১ নভেম্বর ভারতীয় জনতা পার্টির সঙ্গে সব সম্পর্ক ছিন্ন করছিলেন অভিনেত্রী শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। টুইটে দলের প্রতি অসন্তোষ প্রকাশ করে বিজেপি ত্যাগ করেছিলেন তিনি। তখনই রাজনৈতিক দলের একাংশ মনে করেছিলেন, ঘাসফুলের দিকে ঝুঁকছেন শ্রাবন্তী। সেই জল্পনায় অবশেষে ইতি টানলেন। সোমবার বাসন্তীতে তৃণমূলের একটি কর্মিসভায় দলের পতাকা হাতে তুলে নিলেন তিনি। সেখানেই শেষ নয়, মঞ্চ থেকে খোদ তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধন্যবাদও জানান তিনি।

তৃণমূলের ওই দলীয় সভায় উপস্থিত ছিলেন তৃণমূলের পাঁচ বিধায়ক- শওকত মোল্লা, পরেশরাম দাস, সুব্রত মণ্ডল। শ্রাবন্তী সভামঞ্চ থেকে বলেন, আমি বাংলার জন্য কাজ করতে চাই। বাংলারই মেয়ে আমি।
মমতাদিকে অনেক ধন্যবাদ। আপনাদের কাছে অনুরোধ, আমায় আপন করে নিন। আমি আপনাদের জন্যই কাজ করতে চাই। একুশের বিধানসভা নির্বাচনের আগে রাজনীতিতে পা দিয়েছিলেন শ্রাবন্তী। আট মাস পর বিজেপির ছাড়েন টলিউড অভিনেত্রী। সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজেই টুইট করে জানান এ খবর। দল ছাড়ার কারণ হিসেবে তার যুক্তি, বাংলার জনন্য কাজ করার কোনো ইচ্ছা বা আন্তরিকতা নেই বিজেপির মধ্যে।

একুশের বিধানসভা ভোটে শাসকদলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে ঝাঁকে ঝাঁকে অভিনেতা যোগ দেন গেরুয়া শিবিরে। কিন্তু নির্বাচনের ফল বের হতেই এক একে মোহভঙ্গ হতে থাকে। প্রথমে রাজনীতি ছাড়ার ঘোষণা করেন অভিনেতা তনুশ্রী চক্রবর্তী। তারপরেই বিজেপি ছাড়েন অভিনেতা শ্রাবন্তী । তবে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করেই কার্যত তুঙ্গে রাজনৈতিক তরজা। শ্রাবন্তী সত্যিই দলে যোগ দিচ্ছেন কি না তা স্পষ্ট নয়। সে বিষয়ে নিজেও কোনও মন্তব্য করেননি অভিনেত্রী। তৃণমূলের তরফেও চূড়ান্ত কোনও সিদ্ধান্ত জানানো হয়নি।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর