× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৮ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার , ১৪ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

মাগুরায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় আহত ২০, বিজয়ী প্রার্থীসহ আটক ১৩

বাংলারজমিন

মাগুরা প্রতিনিধি
১ ডিসেম্বর ২০২১, বুধবার

মাগুরার শালিখা উপজেলার ধনেশ্বরগাতী ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডে বিজয়ী ও পরাজিত দুই ইউপি সদস্য প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষে উভয়পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে ৭ জনকে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ বিজয়ী ইউপি সদস্যসহ ১৩ জনকে আটক করেছে। মঙ্গলবার সকালে ধনেশ্বরগাতি ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের বটতলা বাজার এলাকায় এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
মাগুরা সদর হাসপাতালে ভর্তি বিজন বিশ্বাসসহ অন্যরা জানান, গত ২৮শে নভেম্বর তৃতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে শালিখা উপজেলার ধনেশ্বরগাতী ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডে সাবেক ইউপি সদস্য প্রমথ বিশ্বাস ঘড়ি প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করেন। তার প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন ফুটবল প্রতীকের জীবন বিশ্বাস। নির্বাচনে জীবন বিশ্বাস ৯৯৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। অন্যদিকে ৯৯৬ ভোট পেয়ে মাত্র ১ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত হন প্রমথ বিশ্বাস। পরাজয় মেনে নিতে না পেরে প্রমথ বিশ্বাস সোমবার পুনরায় ভোট গণনার জন্য মাগুরা জেলা নির্বাচন অফিসারের কার্যালয়ে একটি লিখিত আবেদন করেন।
যা  জীবন বিশ্বাসের সমর্থকরা ক্ষুব্ধ হন। উত্তেজনার এক পর্যায়ে মঙ্গলবার সকালে বটতলা এলাকায় জীবন বিশ্বাসের সমর্থকদের সঙ্গে প্রমথ বিশ্বাসের সমর্থকদের সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষে প্রমথ বিশ্বাস (৫৫), অসীম বিশ্বাস (৪০), বিজন বিশ্বাস (৪৫), রিক্তা বিশ্বাস (৩৫), পলি বিশ্বাস (২৫), বিচিত্র বিশ্বাস (২৭) ও তপু বিশ্বাস (১৮)সহ উভয় পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হন। খবর পেয়ে শালিখা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পুলিশ এলাকা থেকে ১৩ জনকে আটক করে। আহতদের মধ্যে ৭ জনকে মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। শালিখা থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি, তদন্ত) বিশারত ইসলাম বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় জীবন বিশ্বাসসহ মোট ১৩ জন আটক রয়েছে। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর