× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, মঙ্গলবার , ১১ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

কলকাতা কথকতা / কলকাতা পুরভোটে বিক্ষুব্ধ প্রার্থীর সংখ্যা বাড়ছে

কলকাতা কথকতা

জয়ন্ত চক্রবর্তী, কলকাতা
(১ মাস আগে) ডিসেম্বর ২, ২০২১, বৃহস্পতিবার, ১০:০৩ পূর্বাহ্ন

কলকাতা পুরসভার নির্বাচনে দলের টিকিট না পেয়ে বিক্ষুব্ধ প্রার্থীর সংখ্যা বাড়ছে। বুধবার মনোনয়ন পেশের শেষ দিনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাতৃবধূ কাজরী বন্দ্যোপাধ্যায় এর বিরুদ্ধে ৭৩ নম্বর ওয়ার্ডে মনোনয়ন পেশ করেছেন তৃণমূলের ২০ বছরের পুরপিতা ও প্রাক্তন বোরো চেয়ারম্যান রতন মালাকার। এদিনই প্রার্থী তালিকায় নাম থাকা সুব্রত মুখোপাধ্যায় এর বোন তনিমা চট্টোপাধ্যায় নির্দলীয় প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডে।

তনিমার জায়গায় প্রার্থী হয়েছেন প্রার্থী তালিকায় নাম না থাকা গতবারের পুরমাতা সুদর্শনা মুখোপাধ্যায়। সুদর্শনা বুধবার পার্টির প্রতীক নিয়ে মনোনয়ন জমা দেন। সুদর্শনাকে প্রার্থী করার জন্যে এলাকার মানুষও চাপ দিচ্ছিলেন। তনিমা রোববার প্রচার শুরু করবেন তৃণমূল প্রার্থী হিসেবে। তিনদিনের মধ্যে তিনি নির্দলীয় হয়ে গেলেন।
আর পার্টির টিকিট না পাওয়া সুদর্শনা চাঙ্গা হয়ে গেলেন।

বিজেপিতেও বিক্ষোভ আছে। প্রয়াত বিজেপি পুরমাতা তিস্তা বিশ্বাসের স্বামী গৌরব বিশ্বাসকে প্রার্থী করেনি দল। তিনি নির্দলীয় দাঁড়িয়েছেন। সাংসদ রুপা গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন, তিনি এই ওয়ার্ডের বিজেপি প্রার্থী নয়, গৌরবকেই সমর্থন করছেন। কংগ্রেসও পাঁচটি ওয়ার্ড এ প্রার্থী বদলে বাধ্য হয়েছে।

শুধু, শান্তিতে আছে বামেরা। তাদের ঘোষিত প্রার্থী তালিকায় এত বিক্ষোভের ঝড় নেই। তৃণমূলের পক্ষ থেকে জানান হয়েছে, চার ডিসেম্বর এর মধ্যে যদি নির্দলীয়রা প্রার্থী পদ প্রত্যাহার না করে তাহলে পার্টির হাতে এদের বহিস্কার করা ছাড়া আর কোনও পথ থাকবে না।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর