× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২১ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার , ৭ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

বৃদ্ধাকে ধাক্কা দেয়া ময়লার গাড়িটি কার?

শেষের পাতা

স্টাফ রিপোর্টার
৩ ডিসেম্বর ২০২১, শুক্রবার

রাজধানীর মোহাম্মদপুরে বৃদ্ধাকে ধাক্কা দেয়া ময়লার গাড়ির দায় নিচ্ছে না সিটি করপোরেশন। ময়লার গাড়িতে (যশোর ট-১২৩৬) ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের স্টিকার থাকলেও ওই করপোরেশনের দাবি গাড়িটি তাদের নয়। গতকাল সকালে মোহাম্মদপুর বাসস্ট্যান্ডে ময়লার গাড়ির ধাক্কায় আরজু বেগম (৬০) নামের এক বৃদ্ধা আহত হন। এতে তিনি কোমর ও হাতে আঘাত পান। পরে পুলিশ চালকসহ গাড়িটি আটক করে। বিভিন্ন গণমাধ্যমে সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় বৃদ্ধা আহত এমন সংবাদ প্রকাশিত হলে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন জানায় গাড়িটি তাদের নয়। এদিকে গাড়িটিতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের স্টিকার রয়েছে। স্টিকারে লেখা রয়েছে, ‘ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন গভীর নর্দমা জরুরি পরিষ্কার কাজে নিয়োজিত।
আদেশ ক্রমে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন।’ দুর্ঘটনার পর পুলিশ গণমাধ্যমকে জানিয়েছে, দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের স্টিকারধারী একটি ময়লার গাড়ি বৃদ্ধাকে ধাক্কা দেয়। এ ঘটনায় রতন নামে একজনকে আটক করা হয়েছে। আটককৃত গাড়িচালক গাড়িটি দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বলে পুলিশকে জানিয়েছে।

ডিএনসিসি’র আওতাধীন এলাকায় দুর্ঘটনার শিকার ময়লার গাড়ি নিয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা আবুল বাসার মুহাম্মদ তাজুল ইসলাম মানবজমিনকে বলেন, মোহাম্মদপুর এলাকায় যে গাড়ির ধাক্কায় বৃদ্ধা আহত হয়েছেন সেই গাড়িটি ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নয়। এবিষয়ে সংশ্লিষ্ট থানার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। তিনি আমাকে নিশ্চিত করেছেন যে গাড়ি, গাড়ির চালক এবং হেলপার কোনোটিই ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নয়।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবু নাসের গণমাধ্যমে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, মোহাম্মদপুরে সংঘটিত সড়ক দুর্ঘটনায় সম্পৃক্ত ‘কথিত ময়লার গাড়ি’ দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নয়। ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের কার্যক্রমে কিংবা করপোরেশনের অন্যান্য কোনো কার্যক্রমে ‘যশোর ট-১২৩৬’ ক্রমিকের কোনো গাড়ি ব্যবহৃত হয় না। এমনকি করপোরেশনের গাড়ির যে তথ্যভাণ্ডার রয়েছে তাতেও এ ধরনের কোনো গাড়ির তথ্য-উপাত্ত নেই। এ ছাড়াও দুর্ঘটনাস্থল হিসেবে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংশ্লিষ্ট স্থানও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের আওতাধীন এলাকায় নয়। গাড়িতে সিটি করপোরেশনের স্টিকার নিয়ে তিনি জানান, কোনো ব্যক্তি বা মহল অসাধু উদ্দেশ্য সাধনে কোনো সংস্থার নাম কাগজে কিংবা স্টিকারে ছাপিয়ে তা সংশ্লিষ্ট সংস্থার মালিকানা বহির্ভূত অন্য কোনো গাড়িতে সেটে দিলেই সেই গাড়িটি সংশ্লিষ্ট সংস্থার গাড়ি হয়ে যায় না। আর প্রয়োজনীয় তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ ও যাচাই-বাছাই না করে, অপরাধের সঙ্গে সম্পৃক্ত ব্যক্তিদের মধ্যে কারও মৌখিক প্রাথমিক স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে প্রাপ্ত তথ্য শতভাগ বস্তুনিষ্ট হবে এ ধরনের নিশ্চয়তা বিধান করে না। কারণ অপরাধী ব্যক্তি মাত্রই নানা ধরনের ছলচাতুরীর আশ্রয় নিয়ে থাকে।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহাম্মদ মানবজমিনকে বলেন, বৃদ্ধাকে ধাক্কা দেয়া গাড়িটি আমাদের সিটি করপোরেশনের নয়। আমি পরিবহন বিভাগের মহাব্যবস্থাপক বিপুল চন্দ্র বিশ্বাসের সঙ্গে আলাপ করে জেনেছি গাড়িটি আমাদের না। স্টিকার নিয়ে তিনি বলেন, কারা কি উদ্দেশ্যে এমন স্টিকার লাগিয়ে ময়লা টানছে আমার জানা নেই। কোনো ঠিকাদার যদি গাড়িতে স্টিকার ব্যবহার করে দুর্ঘটনা ঘটায় তার দায় সিটি করপোরেশন নিবে না।

মোহাম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ বলেন, গাড়িতে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের স্টিকার আছে। আসলে গাড়িটি দুই সিটি করপোরেশনের কারও নয়। এটি ব্যক্তি মালিকানাধীন। ময়লা পরিষ্কারকারী ঠিকাদারদের। গাড়ির চালকের নাম রতন (৩০)। তাকে আটক করা হয়েছে। আহত ওই নারী হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে বাসায় ফিরেছেন। জব্দ করা গাড়ি ও চালক থানায় আটক আছে। যদি ওই নারী আইনগত ব্যবস্থা নেন, তা হলে আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করবো।

এর আগে গত ২৪শে নভেম্বর রাজধানীর গুলিস্তানে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের গাড়ির ধাক্কায় নটর ডেম কলেজের শিক্ষার্থী নাঈম হাসান মারা যান। পরদিন পান্থপথ এলাকায় ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ময়লার গাড়ির ধাক্কায় প্রথম আলোর সাবেক কর্মী আহসান কবির খান মারা যান। এসব ঘটনায় গত কয়েকদিন ধরে রাজধানীতে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর