× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২০ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার , ৬ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

এযুগেও এনালগ বিশ্ববিদ্যালয়

শিক্ষাঙ্গন

আনিসুর রহমান, পবিপ্রবি প্রতিনিধি
(১ মাস আগে) ডিসেম্বর ৩, ২০২১, শুক্রবার, ১০:২১ পূর্বাহ্ন

তথ্য প্রযুক্তি ছোঁয়ায় ডিজিটাল হচ্ছে দেশ। সরকারি -বেসরকারি প্রায় সব অফিসের কার্যক্রম চলছে ডিজিটাল পদ্ধতিতে। কিন্তু পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (পবিপ্রবি) এক্ষেত্রে একদমই আলাদা। প্রযুক্তির ছোঁয়া লাগেনি এখানে। অফিসের সব কার্যক্রম হয় সনাতন (এনালগ) পদ্ধতিতে। এখনো সব রকমের তথ্য-দলিল কাগজ কলমে সংরক্ষণ করা হয়।

শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ইচ্ছা করলেই প্রশাসনিক সকল কার্যক্রম ডিজিটালাইজেশন করতে পারে। প্রশাসনিক সকল কার্যক্রম এনালগ পদ্ধতিতে চলেছে। ফলে কোনো কাজের জন্য আমাদেরকে এক দপ্তর থেকে অন্য দপ্তরে ছুটতে হয়।


বিশ্ববিদ্যালয় সুত্রে জানা যায়, শিক্ষার্থীদের নতুন সেমিস্টারে ভর্তি, সেমিস্টার ফি সহ অন্যান্য ফি, মার্কশীট উত্তোলন, প্রবেশ পত্র সংগ্রহ সহ যাবতীয় কাজের জন্য শিক্ষার্থীদেরকে নিজ হাতে ফরম পূরণ করে প্রতিটি দপ্তরে যেতে হয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি অনুষদের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান তারেক বলেন, বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, ডিজিটাল হচ্ছে। এর সঙ্গে তাল মিলিয়ে পবিপ্রবির কার্যক্রমও ডিজিটালাইজেশন করা সময়ের দাবি। এতো শিক্ষার্থীদের ভোগান্তি অনেকাংশে কমবে।

প্রশাসনিক সকল কার্যক্রম এনালগ পদ্ধতিতে চলার কারনে অনেক ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে শিক্ষার্থীদেকে।

বিশ্বিবদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড.স্বদেশ চন্দ্র সামন্ত মানবজমিনকে বলেন, শিক্ষার্থীদের সুবিধার জন্য প্রশাসনিক কার্যক্রম ডিজিটাল হওয়া জরুরি। দ্রুতই সবকিছু ধাপে ধাপে অটোমেশনের আওতায় আনা হবে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর