× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৮ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার , ১৪ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

সাকিব-ডমিঙ্গোকে নিয়ে যা বললেন পাপন

খেলা

স্পোর্টস রিপোর্টার
৫ ডিসেম্বর ২০২১, রবিবার

নিউজিল্যান্ড সিরিজের জন্য দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। সেখানে রাখা হয়েছে সাকিব আল হাসানকে। ইনজুরি কাটিয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে ঢাকা টেস্টে ফেরা সাকিবকে আসন্ন সিরিজের স্কোয়াডে রাখা নিশ্চিতই ছিল। তবে জানা গেছে এই সফরে  যেতে চাইছেন না সাকিব। তিনি বিসিবি’র কাছে ছুটি চেয়েছেন। গতকাল ঢাকা টেস্টের প্রথম দিন শেষে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন সংবাদ সম্মেলনে যে বক্তব্য রাখেন তাতেও ধোঁয়াশা কাটেনি। সাকিবকে ছুটি দেয়া প্রসঙ্গে বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘আনুষ্ঠানিকভাবে সে (সাকিব) কিছু বলেনি। তবে অনানুষ্ঠানিকভাবে বলেছে।
আমি বলেছি অফিসিয়ালি জানাতে। তারপর সিদ্ধান্ত। কেন ছুটি চাইছে, এর একটা কারণ তো দিতে হবে। তামিমও নাই। সাকিব কেবল ব্যাটার নয় বোলারও। সাকিব থাকলে টিম কম্বিনেশনটা ভালো  হয়। আর সবার বিকল্প থাকলেও সাকিবের নেই। এটা আমি সব সময় বলে আসছি।’
সাকিবকে নিউজিল্যান্ড সফরের দলে নেয়ার ব্যাপারে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, ‘সাকিব আমাদের আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি। তাই সাকিব থাকবে ধরে নিয়েই দল ঘোষণা করেছি।’
গুঞ্জন রয়েছে নিউজিল্যান্ড সিরিজেই শেষ হচ্ছে বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডমিঙ্গোর অধ্যায়। তবে নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছেন, এখনই তার সঙ্গে সম্পর্ক শেষ হচ্ছে না বাংলাদেশের। তার সঙ্গে চুক্তির মেয়াদ বাড়ানো হয়েছে। তবে জানুয়ারিতে নতুন করে চিন্তা করা হবে তিনি থাকবেন কি না। পাপন বলেন, ‘বিশ্বকাপ শুরুর ঠিক আগ মুহূর্তে রাসেল ডমিঙ্গো আমাদের কাছে লিখিতভাবে জানায় যে তার একটা ভালো প্রস্তাব আছে। সে জানতে চাইছিল যে আমরা তাকে টেনে নিবো নাকি নিবো না। যদি আমরা তার মেয়াদ বৃদ্ধি করি তাহলে সে থাকবে। আর যদি না করি তবে সে ঐ ঝুঁকির মধ্যে থাকবে না। তাহলে সে ওই জায়গায় কথা দিয়ে দেবে। এরকম একটা পরিস্থিতি ছিল আরকি। আমরা অনেক খোঁজাখুজি করেছিলাম। যতটুকু সম্ভব। এরপর আমরা একটা সিদ্ধান্তে পৌঁছাই যে এ সময়ে আমরা কোনো কোচ পাবো না। আর যদি পাইও বিশ্বকাপের পর একজন নতুন কোচ আনবো কিনা এ নিয়ে দ্বিধায় ছিলাম। আমরা যাদের খুঁজছিলাম তাদের বেশিরভাগই আগামী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পর্যন্ত বুকড। এসব বিষয় চিন্তা করে বোর্ড সেসময় সিদ্ধান্ত নেয় তার মেয়াদ বৃদ্ধি করবে।’
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর