× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২১ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার , ৭ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

ভারতে ভোট সমীক্ষা সেফোলজির অন্যতম প্রাণপুরুষ চলে গেলেন

ভারত

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা
(১ মাস আগে) ডিসেম্বর ৫, ২০২১, রবিবার, ৯:৫৯ পূর্বাহ্ন

ভারতে নানা ভোট আসবে, যাবে- কিন্তু আর কোনোদিনই টেলিভিশনে ভোট সমীক্ষা করতে দেখা যাবেনা তাঁকে। শান্ত, বুদ্ধিদীপ্ত চোখে শানিত বিশ্লেষণ আর দেখা যাবে না। শনিবার প্রয়াত হয়েছেন বিশিষ্ট সাংবাদিক বিনোদ দুয়া। আজ থেকে ৪১ বছর আগে ১৯৮০ সালে আর এক বিশিষ্ট সাংবাদিক প্রণয় রায়কে সঙ্গে নিয়ে যিনি শুরু করেছিলেন ভারতে প্রথম সেফোলজি- ভোট সমীক্ষা।

প্রণয় ইংরেজিতে এবং বিনোদ দুয়া হিন্দিতে ভারতীয় দূরদর্শনে ভোট সমীক্ষা করতেন। ইন্ডিয়া টুডের সম্পাদক অরুন পুরী বিস্মিত হয়ে গিয়েছিলেন দুই তরুণের সাহস দেখে। তাঁরা অরুন পুরীকে বলেছিলেন, সুযোগ পেলে তাঁরা ভোটের সম্ভাব্য ফলাফল আগে জানিয়ে দিতে পারেন বিশ্লেষণের মাধ্যমে। অরুন পুরী সেদিন রাজি হয়েছিলেন।
তাঁদের সমীক্ষা সাড়া জাগিয়েছিল।

সেই প্রণয় রায়-বিনোদ দুয়া জুটির বিনোদ শনিবার চলে গেলেন ৬৭ বছর বয়সে। অ্যাপোলো হাসপাতালে বুকে ব্যাথা নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন। সেখানেই সব শেষ। এই হাসপাতালেই কিছুদিন আগে করোনা প্রাণ কেড়েছে তাঁর রেডিওলজিস্ট স্ত্রী চিন্নার। বিশিষ্ট অভিনেত্রী এবং বিনোদ দুয়ার কন্যা মল্লিকা দুয়া ঠিকই লিখেছেন ফেসবুকে যে ভারতীয় সাংবাদিকতার একটি যুগের ওপর পর্দা পড়লো। বিনোদ দুয়ার মত নির্ভীক, আপোষহীন সাংবাদিক সত্যিই আজ বিরল।

পদ্মশ্রী সম্মান পেয়েছিলেন। কিন্তু, মেরুদন্ড তাঁর নমনীয় হয়নি। বিনোদ দুয়ার মৃত্যুতে সত্যি যুগাবসান হল।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর