× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৫ জানুয়ারি ২০২২, মঙ্গলবার , ১১ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২১ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

করোনায় ঢাবি অধ্যাপকের মৃত্যু, নিয়েছিলেন দুই ডোজ টিকা

শিক্ষাঙ্গন

বিশ্ববিদ্যালয় রিপোর্টার
(১ মাস আগে) ডিসেম্বর ৫, ২০২১, রবিবার, ৬:৪৬ অপরাহ্ন

দুই ডোজ ভ্যাকসিন নিয়েও করোনায় আক্রান্ত হয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মৎস্য বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মাহমুদ হাসান ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৫৫ বছর।

আজ রোববার বেলা সাড়ে ১২টায় রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। মানবজমিন'কে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মৎস্য বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. মনিরুল ইসলাম। তিনি বলেন, তিনি গত ৭-৮ দিন ধরে আইসিইউ-তে ছিলেন। তিনি দুই ডোজ করোনার ভ্যাকসিন নিয়েছিলেন। তার মৃত্যুতে আমরা সবাই খুবই মর্মাহত।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মসজিদে জানাজা শেষে তার নিজ জেলা রাজবাড়ীতে দাফন করা হবে বলে জানান তিনি।

অধ্যাপক ড. মাহমুদ হাসানের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

শোকবাণীতে ভাইস চ্যান্সেলর বলেন, অধ্যাপক ড. মাহমুদ হাসান ছিলেন অত্যন্ত সৎ, বিনয়ী, নম্র ও সজ্জন চরিত্রের একজন শিক্ষক ও গবেষক। বিভাগীয় শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের কাছে তিনি অত্যন্ত জনপ্রিয় ছিলেন। মৎস্য চাষ বিষয়ে বিশেষজ্ঞ এই গুণী শিক্ষকের রয়েছে অনেক উদ্ভাবন ও মৌলিক গবেষণা।

অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেন এবং তার পরিবারের শোক-সন্তপ্ত সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

গত বছর মার্চে করোনা মহামারি শুরুর পর করোনায় আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৩ জন বর্তমান-সাবেক শিক্ষক মৃত্যুবরণ করেছেন।।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
SJ
৩১ ডিসেম্বর ২০২১, শুক্রবার, ৫:৫৭

টিকা উপকারের চেয়ে ক্ষতি বেশি করে। রাস্ট গুলিকে টিকা নিতে বাদ্য করা থেকে ফিরে আশা উচিত।

অন্যান্য খবর