× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২১ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার , ৭ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৭ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

ফুলতলা সীমান্তে হচ্ছে ‘সীমান্ত হাট’

বাংলারজমিন

স্টাফ রিপোর্টার, মৌলভীবাজার থেকে
৬ ডিসেম্বর ২০২১, সোমবার

মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার ফুলতলায় বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তে চালু হচ্ছে দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী পর্যায়ের সমঝোতা চুক্তির ষষ্ঠ ‘বর্ডার হাট’ (সীমান্তহাট)। গতকাল দুপুরে উপজেলার ফুলতলা ইউনিয়নের পশ্চিম বিটুলী সীমান্ত পিলার ১৮২৭ এর নো-ম্যানস ল্যান্ডে এ সীমান্ত হাটের বাংলাদেশ-ভারত যৌথ ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ হাট চালু হলে স্থানীয় মানুষের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি দুই দেশের প্রয়োজন মাফিক আমদানি-রপ্তানিরও নতুন দিগন্ত উন্মোচিত হবে বলে প্রত্যাশা সংশ্লিষ্টদের। জানা গেছে, ২০১৭ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিল্লি সফরে দুই দেশের মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর হয়। এতে তৎকালীন চলমান ৪টি বর্ডার হাটের সঙ্গে আরও ৬টি বর্ডার হাট যুক্ত করার কথা উল্লেখ করা হয়। এ ৬টি বর্ডার হাটের একটি মৌলভীবাজারের জুড়ীর পশ্চিম বটুলী ও ভারতের উত্তর ত্রিপুরার পালবস্তী সীমান্তের ওই হাটটি। কিন্তু ভূমি নির্ধারণ ও নানা অবকাঠামোগত সমস্যার কারণে বাংলাদেশ অংশের পশ্চিম বটুলীতে তা বাস্তবায়ন বিলম্বিত হয়। যৌথ সভায় বাংলাদেশের পক্ষে মৌলভীবাজার জেলার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রোমানা ইয়াসমিনের নেতৃত্বে জুড়ী উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এমএ মোঈদ ফারুক, ইউএনও সোনিয়া সুলতানা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (কুলাউড়া সার্কেল) সাদেক কাওছার দস্তগীর, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অর্ণব মালাকার, সহকারী কমিশনার ভূমি রতন কুমার অধিকারী, জুড়ী থানার ওসি সঞ্জয় চক্রবর্তী, কমলগঞ্জ উপজেলার সহকারী কমিশনার ভূমি, ফুলতলা ইউপি চেয়ারম্যান মাসুক আহমদ, বিজিবি ৫২ ব্যাটালিয়নের অধিনায়কের একটি প্রতিনিধি দল অংশগ্রহণ করেন।
অপরদিকে ভারতের পক্ষে অংশগ্রহণ করেন উত্তর জেলা ত্রিপুরার এডিশনাল ডিএম ডিবি রিং এর নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল। ভারতীয় প্রতিনিধি দলে সরকারি কর্মকর্তা, পুলিশ ও বিএসএফের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, এ সীমান্ত হাটে কাপড়, সাবান, সবজি, ফল, মসলা, শিশুদের জিনিসপত্র, গৃহস্থালরি নানা জিনিসপত্র, কৃষিজাত পণ্য, জুয়েলারি সামগ্রী, বেকারিপণ্য, সিরামিক্‌স, কসমেটিকসহ বিভিন্ন সামগ্রী বিক্রি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। সীমান্ত হাট স্থাপনের জন্য জুড়ী সীমান্তের ফুলতলা ইউনিয়নের পশ্চিম বটুলী নো-ম্যানস ল্যান্ডে জমি চিহ্নিত করা হয়েছে। বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে সম্পর্ক আরও সুদৃঢ় করতে উভয় দেশের সীমান্তবর্তী এলাকায় এ সীমান্ত হাট চালু হতে যাচ্ছে। সীমান্ত বাজার স্থাপনের লক্ষে শুক্রবার দুই দেশের প্রশাসনিক পর্যায়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। জানা যায় বাণিজ্য ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনের পরই আনুষ্ঠানিকভাবে সীমান্ত হাটের কার্যক্রম শুরু করা হবে। এ সীমান্ত হাটে বাংলাদেশ-ভারতের সর্বোচ্চ ৫০ জন করে মোট ১০০ জন ব্যবসায়ী পণ্য বিক্রি করতে পারবেন। উভয় দেশের ১৫০ জন করে মোট ৩শ’ জন ক্রেতা বিভিন্ন পণ্য ক্রয় করতে পারবেন। ব্যবসায়ীদের বাড়ি সীমান্ত এলাকার ৫ কিলোমিটারের মধ্যে হতে হবে। হাটকে ঘিরে পূর্ণ নিরাপত্তা ব্যবস্থার উদ্যোগ নেয়া হবে। এছাড়া থাকবে ওয়াচ টাওয়ার।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর