× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৯ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার , ১৫ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

বার্সেলোনার ‘ফাইনাল’ আজ

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
৮ ডিসেম্বর ২০২১, বুধবার

উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লীগে আজ টিকে থাকার লড়াইয়ে বার্সেলোনা মুখোমুখি হচ্ছে স্বাগতিক বায়ার্ন মিউনিখের। আলিয়াঞ্জ এরেনা থেকে জয় নিয়ে ফিরতে চায় কাতালান জায়ান্টরা। তবে নিজেদের মাঠে প্রথম লেগে বায়ার্নের কাছে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছিল বার্সেলোনা। আর বার্সেলোনার ডাচ্‌ তারকা মেম্ফিস ডিপাই বলেন, ‘এটা একটা ফাইনাল এবং আমরা প্রতিশোধ চাই।’ ৭ পয়েন্ট নিয়ে ‘ই’ গ্রুপে দুই নম্বরে আছে বার্সেলোনা। আর ৫ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে থাকা বেনফিকা খেলবে ১ পয়েন্ট নিয়ে তলানির দল ডাইনামো কিয়েভের মাঠে। টানা পাঁচ জয়ে আগেই শেষ ষোলো নিশ্চিত করে ফেলেছে বায়ার্ন মিউনিখ। বায়ার্নের বিপক্ষে বার্সেলোনা জয় পেলে অথবা বেনফিকা হেরে গেলে কোনো হিসাব-নিকাশ ছাড়াই উতরে যাবে বার্সেলোনা। তবে বার্সেলোনা হেরে গেলে ড্র করেও পরের রাউন্ডে চলে যাবে বেনফিকা।
কারণ হেড টু হেড রেকর্ডে বার্সার চেয়ে এগিয়ে তারা।
ডিপাই বলেন, ‘নকআউট পর্বে যাওয়ার জন্য এটাই আমাদের শেষ সুযোগ। নিজেদের সবটুকু নিংড়ে ফল বের করে আনতে আমাদেরকে মানসিকভাবে প্রস্তুত হতে হবে।’ এর আগে বার্সেলোনা কোচ জাভি বলেছিলেন শিষ্যদের কাছ থেকে ‘বুনো’ পারফরম্যান্স আশা করছেন তিনি। পরিসংখ্যান যদিও বার্সেলোনার পক্ষে বলছে না। বায়ার্নের বিপক্ষে ১০ ম্যাচে মাত্র ২ জয় পেয়েছে ক্লাবটি। ৭টিতেই হার। গোল হজম করেছে মোট ২৫টি। বায়ার্নের মাঠে কখনোই জিততে পারেনি বার্সেলোনা। আলিয়াঞ্জ এরেনায় এর আগে ১৯৯৮/৯৯ মৌসুমে ১-০ গোলের হার, ২০০৮/০৯ এর কোয়ার্টার ফাইনালে ১-১ ড্র, ২০১২/১৩তে সেমিফাইনালে ৪-০তে হার এবং ২০১৪/১৫তে সেমিফাইনালে ৩-২ গোলে পরাজিত হয় বার্সেলোনা। নিরপেক্ষ ভেন্যু লিসবনে ২০১৯/২০ মৌসুমের কোয়ার্টার ফাইনালে বার্সাকে ৮-২ গোলের লজ্জা দিয়েছিল জার্মান জায়ান্টরা।  
রোমাঞ্চের অপেক্ষায় ‘জি’ গ্রুপ
পাঁচ ম্যাচ হয়ে গেল, এখনো পরের রাউন্ড নিশ্চিত করতে পারেনি কোনো দল। রোমাঞ্চকর লড়াইটা হচ্ছে ‘জি’ গ্রুপেই। সমীকরণের মারপ্যাঁচে ৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থাকা লিলও বাদ পড়তে পারে, গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে যেতে পারে চারে থাকা ভলস্ফবুর্গ! গ্রুপ সেরা হওয়ার সুযোগ আছে সেভিয়া ও সালজবুর্গের সামনেও। পাঁচ ম্যাচে ভলস্ফবুর্গের সংগ্রহ ৫ পয়েন্ট। তারা মুখোমুখি হবে শীর্ষে থাকা লিলের। এ ম্যাচে জিতলে উতরে যাবে ভলস্ফবুর্গ। লিলের কাজটা অপেক্ষাকৃত সহজ। কেবল হার এড়ালেই শেষ ষোলো নিশ্চিত তাদের। ৭ পয়েন্ট থাকায় সেভিয়ার সঙ্গে ড্র করেই উতরে যেতে পারবে সালজবুর্গ। তারা জিতলে এবং অন্য ম্যাচে লিল হারলে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে সালজবুর্গ। ৬ পয়েন্ট থাকায় পরের রাউন্ডে যেতে সেভিয়ার জয় প্রয়োজন। লিল হারলে তাদেরও গ্রুপ সেরা হবার চান্স আছে।
ভিয়ারিয়াল-আতালান্তার টিকে
থাকার লড়াই
ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এরই মধ্যে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে পৌঁছে গেছে পরের রাউন্ডে। ইয়াং বয়েজের বিপক্ষে তাই আজকের ম্যাচটি তাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ নয়। তবে দুই নম্বর পজিশনের জন্য আতালান্তা ও ভিয়ারিয়ালের মধ্যে লড়াই হবে। ৭ পয়েন্ট থাকায় ড্র করলে উতরে যাবে স্প্যানিশ ক্লাব ভিয়ারিয়াল। তবে শেষ ষোলোতে যেতে জিততেই হবে আতালান্তাকে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর