× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৯ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার , ১৫ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

অ্যাশেজ সিরিজ / কামিন্সের দিনে অজিদের দাপট

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
৯ ডিসেম্বর ২০২১, বৃহস্পতিবার

অ্যাশেজ সিরিজের আগমুহূর্তে অস্ট্রেলিয়ার নেতৃত্বে আসে পরিবর্তন। টিম পেইনের দায়িত্ব বর্তে প্যাট কামিন্সের কাঁধে। অধিনায়কত্ব পেয়ে বল হাতে ঝলক দেখালেন এই অজি পেসার। কামিন্সের রেকর্ডগড়া বোলিংয়ে প্রথম ইনিংসে ১৪৭ রানে গুটিয়ে যায় ইংল্যান্ড। এরপর টানা বৃষ্টির কারণে ব্যাটিংয়ে নামতে পারেনি অস্ট্রেলিয়া।
অস্ট্রেলিয়ার নতুন অধিনায়ক প্যাট কামিন্স একাই ৫ উইকেট নেন। ১৩.১ ওভার বল করে ৩৮ রান দেন তিনি। অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক হিসেবে প্রথম ম্যাচেই ৫ উইকেট নেওয়ার কীর্তি আগে ছিল স্রেফ একজনেরই। মিডিয়াম পেস বোলিং অলরাউন্ডার জর্জ গিফেন সেটি করতে পেরেছিলেন সেই ১৮৯৪ সালের ডিসেম্বরে।
অ্যাশেজের মেলবোর্ন টেস্টে তিনি ৬ উইকেট নিয়েছিলেন ১৫৫ রানে। অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে সবশেষ ৫ উইকেট নেওয়া অধিনায়ক ছিলেন রিচি বেনো। ১৯৬২ সালে এই ব্রিজবেনেই ১১৫ রানে ৬ উইকেট নিয়েছিলেন লেগ স্পিনিং অলরাউন্ডার বেনো। দুই দল মিলিয়েই অ্যাশেজে সবশেষ কোনো অধিনায়কের ৫ উইকেট ছিল ১৯৮২ সালে। সেটিও ব্রিজবেনেই! ইংলিশ পেসার বব উইলিস ৫ উইকেট নিয়েছিলেন ৬৬ রানে। টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে মোটেও ভালো শুরু পায়নি ইংল্যান্ড। প্রথম ওভারের প্রথম বলে ররি বার্নসকে বোল্ড করে দুর্দান্ত অস্ট্রেলিয়াকে দুর্দান্ত শুরু এনে দেন মিচেল স্টার্ক। ১৯৩৬ সালের পর কোনো অ্যাশেজ টেস্টে ম্যাচের প্রথম বলেই উইকেট নেয়ার কীর্তি অর্জন করলেন স্টার্ক। আর ইংলিশ ওপেনার বার্নস গড়েন একই বছরে সর্বোচ্চ ছয়বার শূন্য রানে আউট হওয়ার লজ্জাজনক রেকর্ড।
দলীয় ১১ রানে দ্বিতীয় উইকেট হারায় ইংল্যান্ড। ডেভিড মালানকে ৬ রানে ফেরান জশ হ্যাজলউড। আর জো রুটকে তো রানের খাতাই খুলতে দেননি হ্যাজলউড। দলীয় ২৯ রানে সাজঘরে ফেরেন বেন স্টোকস। অজিদের নতুন অধিনায়ক প্যাট কামিন্সের উইকেটে পরিণত হওয়ার আগে স্টোকসের সংগ্রহ ৬ রান। ইংলিশ ব্যাটারদের মধ্যে মাত্র চার জন ছুঁইয়েছেন দুই অঙ্কের ঘর। হাসিব হামিদ ৭৫ বলে ২৫ রান করে কামিন্সের বলে ক্যাচ আউট হন। ৭৯ বলে ৩৫ রান করেন ওলি পোপ। ৫৮ বলে ৫টি চার হাঁকিয়ে ৩৯ রান করেন জস বাটলার। ক্রিস ওকসের সংগ্রহ ২১ রান। ২৪ বলের ইনিংসে ৪টি চার হাঁকান তিনি। মার্ক উড ৮ ও জ্যাক লিচ ২ রান করেন।
ইংলিশ ব্যাটারদের মধ্যে ডাক মেরেছেন মোট তিন জন। ররি বার্নস, জো রুটের পর শূন্য রানে আউট হন ওলি রবিনসন।
অস্ট্রেলিয়ার প্যাট কামিন্স ৫ উইকেট নেন। দুটি করে উইকেট পান মিচেল স্টার্ক, জশ হ্যাজলউড। একটি উইকেট শিকার করেন ক্যামেরন গ্রিন।

অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর