× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২৫ মে ২০২২, বুধবার , ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৩ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

কলকাতা কথকতা /আংটি বদলের পর বিয়ের পরিকল্পনা দুই বাঙালি নারী চিকিৎসকের

কলকাতা কথকতা

বিশেষ সংবাদদাতা, কলকাতা
(৪ মাস আগে) জানুয়ারি ৭, ২০২২, শুক্রবার, ১০:২৬ পূর্বাহ্ন

গোয়ার সমুদ্রসৈকতে আংটি বদল সেরে ফেললেন দুই বাঙালি মহিলা চিকিৎসক। পারমিতা মুখোপাধ্যায় ও সুরভি মিত্রর এই বাগদান অনুষ্ঠানটি নিয়ে কোন রকম লুকোছাপার বিষয় রাখলেন না দুজনে। সংবাদ সংস্থাকে পারমিতা এবং সুরভি জানিয়েছেন, তাঁরা জানেন কি করছেন, একে অপরকে ভালোবাসেন, এই ভালোবাসায় নেই মালিন্য। তাই, দুই পরিবারের সম্মতি নিয়েই তাঁরা বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

একজন আরেক একজনের সঙ্গে সারা জীবন কাটাতে চান। সুরভি মনোরোগ বিশেষজ্ঞ। যেদিন থেকে তিনি বুঝতে পারেন যে পুরুষরা তাঁকে আকর্ষণ করেনা। সমলিঙ্গের মেয়েরা তাঁর কাছে আকর্ষনিয়া, তিনি এই বিষয়ে পড়াশোনা শুরু করেন।
জিনিসটা অস্বাভাবিক কিনা তা জানার চেষ্টা করেন। পারমিতা মুখোপাধ্যায় জেনারেল প্র্যাকটিশনার। ২০১৩ সাল থেকে তিনি বুঝতে পারেন, কোন পুরুষ নয়, বরং পুরুষালি চেহারার মেয়েরা তাঁকে টানছে বেশি, তিনি অকপট হন প্রথমে বাবার কাছে। তারপর মায়ের কাছে।

মা শুনে হকচকিয়ে গেলেও, বাবা বিষয়টি বুঝতে পারেন। মাকে বুঝিয়ে বলেন। এরপর মাও মেনে নেন। কর্মসূত্রে সুরভি-পারমিতার দেখা হয়। লাভ এট ফার্স্ট সাইট। দুজনেই দুজনের প্রেমে পড়েন। ২০১৮ সালে সমলিঙ্গে বিয়ের ধারা টি সংবিধানে অনুমোদিত হওয়ার পর এবং ৩৭৭ ধারা অবলুপ্তির পর তাঁরা বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। দুই মহিলা চিকিৎসক আংটি বদল করে বাগদান সেরে নিলেন গোয়ায়। এরপর ঘটা করে তাঁরা বিয়ে করবেন। আজকাল সমলিঙ্গের বিয়েতে যেমন সংগীত, হলদি, মেহেন্দি অনুষ্ঠান হয়, তেমন সব হবে। দুই মহিলা চিকিৎসক সামাজিক ট্যাবু ভেঙে দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে চান।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Kayes Saifullah Parv
৮ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার, ২:৩২

কমেন্টে দেখলাম অনেকে অনেক কিছু বলছে অনেকে ধর্মের দোহাই দিচ্ছে কিন্তু আমি বুঝতে পারছি না এই সমস্ত মাথা মোটাদের মাথায় ঢুকছে না কেন এটা ঈশ্বরের দৃষ্টিতে স্বাভাবিক আর তা হলে ঈশ্বর কেন এমন মানুষ তৈরি করতেন।

মু জি র বাদশাহ
৬ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১১:০২

নাউজুবিল্লাহ, ওরা নিজেরা নিজেদের উপর মহান আল্লাহর লা'নত ডেকে আনলো।

Md. Harun al-Rashid
৭ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার, ১১:০৯

এরা চিকিৎসক- চিকিৎসা না নিয়ে মূর্খের মত উভয়ে মানষিক রুগির মত প্রকৃতি বিরোধী একটা নষ্ট অবস্থানকে বিবাহ বলছে। বিবাহতো ধর্মিয় বন্ধন- যা নারী পুরুষে হয়।এদের এই অবস্থানকে পাপাচারের সমকামিতা বলে।

Kazi
৬ জানুয়ারি ২০২২, বৃহস্পতিবার, ১০:০০

সুরভি নিজেই মনোরোগী। সে মনোরোগের কি চিকিৎসা দিবে বলুন । শুনেছি এই সব বিষয় নিয়ে পড়ার ফলে অনেক শিক্ষার্থী এই রোগে আক্রান্ত হয় ।

মোঃ তাওহীদ মোল্যা
৭ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার, ১০:৪৮

আমার মাথায় আসে না, শিক্ষিত সমাজে এটা কিভাবে সম্ভব। জীবনে তারা মনে হয় বহুত ধোকা খাইছে।

শহীদ
৭ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার, ১০:৩১

যৌণ ক্রিয়া সম্পাদনে মানুষ নানান উপায় অবলম্বন করে। সমকামিতা সেধরণের একটি মাধ্যম। এখানে শারীরিক সুখ কিংবা সন্তান ধারণ নয়; স্বাস্থ্যের অবনতি।

অন্যান্য খবর