× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৬ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার , ১২ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

কোহলিদের বিস্ফোরক মন্তব্যের পর সিরিজ প্রোটিয়াদের

খেলা

স্পোর্টস ডেস্ক
১৪ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার

লোকেশ রাহুল সরাসরিই বলেছেন, ‘পুরো দেশ আমাদের ১১ জনের বিরুদ্ধে খেলছে।’ প্রোটিয়া ওপেনার ডিন এলগার রিভিউ নিয়ে বেঁচে যাওয়ায় শুধু রাহুল নয়, অধিনায়ক বিরাট কোহলি এবং রবিচন্দ্রন অশ্বিনও ক্ষোভ ঝারেন মাঠে। তাদের বিস্ফোরক মন্তব্য বাড়তি উত্তেজনা যোগ করে কেপ টাউন টেস্টে। চতুর্থ দিনে জয়ের জন্য প্রোটিয়াদের প্রয়োজন ছিল ১১১ রান, ভারতের ৮ উইকেট। শেষ পর্যন্ত জয় হলো ব্যাটারদের। ভারতকে ৭ উইকেটে হারিয়ে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ জিতে নিলো স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা।

১০১/২ নিয়ে চতুর্থ দিন শুরু করে দক্ষিণ আফ্রিকা। ব্যাট হাতে প্রোটিয়াদের পথ দেখান কিগান পিটারসেন, রাশি ভ্যান ডার ডুসেন ও টেম্বা বাভুমা। তৃতীয় উইকেটে ডুসেনের সঙ্গে ৫৪ রানের জুটি গড়ে জয়ের ভিত তৈরি করেন কিগান। ব্যক্তিগত ৮২ রানে শার্দুল ঠাকুরের বলে বোল্ড হন তিনি।
১১৩ বলে ১০ রানে কিগান উপহার দেন ৮২ রানের ইনিংস। এরপর ডুসেন-বাভুমার অবিচ্ছন্ন ৫৭ রানের জুটিতে জয়ের বন্দরে পৌঁছে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। ডুসেন ৯৫ বলে ৪১ এবং বাভুমা ৫৮ বলে ৩২ রান করে অপরাজিত থাকেন।

তৃতীয় দিনে ডিন এলগারের রিভিউ ইস্যুতে ক্ষোভে ফেটে পড়ে ভারতীয় শিবির। ঘটনা দক্ষিণ আফ্রিকা ইনিংসের ২১তম ওভারে। অশ্বিনের বলে এলবিডব্লুর ফাঁদে পড়েন এলগার। ২১২ রানের লক্ষ্যে নামা দক্ষিণ আফ্রিকার দলীয় সংগ্রহ তখন ৬০/১। এলগারকে ফিরিয়ে স্বাভাবিকভাবেই উল্লাসে মাতেন কোহলিরা। কিন্তু আনন্দ বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। রিভিউয়ের পর দেখা যায় বল স্টাম্পের উপর দিয়ে চলে যাচ্ছে। ফলে বেঁচে যান এলগার। এ নিয়ে স্টাম্প মাইক্রোফোনেই এলগারকে উদ্দেশ্য করে কোহলি বলতে থাকেন,  ‘প্রতিপক্ষ নয়, তোমার দলের প্রতি নজর দাও যখন তারা বল শাইনিংয়ে ব্যস্ত থাকে। সব সময় আমাদের ধরার চেষ্টা করা হচ্ছে।’
লোকেশ রাহুলকে বলতে শোনা যায়, ‘১১ জনের বিরুদ্ধে পুরো দেশ।’ রাহুল মূলত এই সিরিজের ব্রডকাস্টার ‘সুপারস্পোর্টস’কে উদ্দেশ্য করে কথাটা বলেছেন। তিনি বুঝাতে চেয়েছেন সুপারস্পোর্টসের কারসাজিতেই রিভিউয়ে এমনটা দেখা গেছে। কারণ বল ট্র্যাকিং টেকনোলজি ‘হক আই’ হোস্ট ব্রডকাস্টার সুপারস্পোর্টসের দেয়া ডাটার ওপর ভিত্তি করেই তাদের সিদ্ধান্ত জানিয়েছে। স্পিনার রবি অশ্বিন তো বলেই বসেন, ‘ম্যাচটা জেতার জন্য সুপারস্পোর্টস তোমাদের আরো ভালো রাস্তা বেছে নেয়ার দরকার ছিল।’ এ নিয়ে ভারতীয় দলের বোলিং কোচ পরশ মামব্রে বলেন, ‘সবাই দেখেছে কি হয়েছে। এই ধরনের পরিস্থিতিতে অনেকেই অনেক কিছু বলে ফেলে। খেলায় এমনটা হয়েই থাকে।’
কোহলিদের মন্তব্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছে। খোদ ভারতেরই সাবেক ওপেনার গৌতম গাম্ভীর বলেছেন, ‘কোহলি অপরিপক্ব। ভারতীয় অধিনায়ক স্টাম্প মাইকের সামনে এভাবে কথা বলছে, দৃশ্যটা খুবই অসুন্দর। এসব করে তুমি কখনো তরুণদের আইডল হতে পারবে না।’
সংক্ষিপ্ত স্কোর
ভারত: ২২৩ ও ১৯৮
দ. আফ্রিকা: ২১০ ও ২১২/৩
ফল: দ. আফ্রিকা ৭ উইকেটে জয়ী
সিরিজ: ৩ ম্যাচ সিরিজে ২-১ ব্যবধানে জয়ী দ. আফ্রিকা।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Anwarul Azam
১৪ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার, ৬:৫৪

খেলায় হারজিত থাকবেই। এসব খেলার আকর্ষণ কমিয়ে দেয়। সুতরাং।।

দোলন
১৪ জানুয়ারি ২০২২, শুক্রবার, ৬:০২

তোমাদের অস্ত্র তোমাদের বিরূদ্বেই ব্যবহার হল

অন্যান্য খবর