× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনসাক্ষাতকাররকমারিপ্রবাসীদের কথামত-মতান্তরফেসবুক ডায়েরিবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে ষোলো আনা মন ভালো করা খবরকলকাতা কথকতাখোশ আমদেদ মাহে রমজানস্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীসেরা চিঠিইতিহাস থেকে
ঢাকা, ২৬ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার , ১২ মাঘ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২২ জমাদিউস সানি ১৪৪৩ হিঃ

দুর্গাপুরে ভেজা বালু পরিবহনে সড়কের বেহাল দশা, ভোগান্তি

বাংলারজমিন

দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি
১৫ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার

নেত্রকোনার দুর্গাপুরে সোমেশ্বরী নদী থেকে উত্তোলিত ভেজা বালুর ট্রাক দিয়ে পরিবহনের কারণে পৌরশহরের সড়কগুলো সবসময়ই কাদাপানিতে ভরে থাকে। ট্রাকে করে ভেজা বালু পরিবহনের সময় নদীর পানি সড়কের ওপর পড়ে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়।  এতে চলাচলে বিপাকে পড়তে হচ্ছে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীসহ পথচারীদের। দুর্গাপুর পৌর শহরের মধ্য দিয়ে বয়ে চলা সোমেশ্বরী নদীটি একসময় ছিল অপরূপ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অনন্য লীলাভূমি কিন্তু বর্তমানে অপরিকল্পিতভাবে বালু উত্তোলনের কারণে নদীটি  বিপর্যয়ের দ্বারপ্রান্তে। রাস্তায় কাদা থাকার কারণে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছে ভ্রমণ পিপাসুরা। সরজমিন ঘুরে দেখা যায়, ইজারাকৃত বালুমহাল থেকে  পৌর শহরের প্রেস ক্লাব মোড়, উপজেলা মোড়, উকিলপাড়া, কালীবাড়ী মোড়, তেরীবাজার, কলেজ মোড়সহ বেশকিছু সড়ক দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার ট্রাক, লরি ও ড্রামট্রাক দিয়ে ভেজাবালু পরিবহন করায় সড়কগুলোর বিভিন্ন স্থানে খানাখন্দের সৃষ্টিসহ স্তূপ জমে থাকে কাদার। এসব মোড়ের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কমে গেছে  বেচাকেনা। লোকসানের মুখে পড়তে হচ্ছে তাদের। দিনভর যান চলাচলের কারণে শত শত ট্রাক রাস্তার ওপর দাঁড়িয়ে থাকায় যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।
এ নিয়ে বেশ কয়েকবার কিছু সংগঠনসহ সাধারণ মানুষ আন্দোলন-সংগ্রাম করেও কোনো লাভ হয়নি। স্থানীয়দের অভিযোগ, প্রশাসন থেকে বার বার ভেজাবালু পরিবহন বন্ধের আশ্বাস দিলেও বাস্তবে তা কার্যকর হয়নি। বালুবাহী ট্রাকের জন্য বাইপাস সড়কের আশ্বাস দিলেও বাস্তবায়ন হয়নি এখনো। স্থানীয় প্রভাবশালী একটি মহল বালু ব্যবসা করে ব্যাপকভাবে লাভবান হলেও ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে নদী ও  সাধারণ মানুষ। দুর্গাপুরের সাধারণ মানুষ ও সোমেশ্বরী নদীর দুর্দশা নিরসনে যথাযথ কর্তৃপক্ষ সহ প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন এলাকাবাসী।  এ নিয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ রাজীব উল আহসান বলেন, ভেজা বালু পরিবহন বন্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হচ্ছে। বালু মহালের ইজারাদারদের ভেজা বালু পরিবহন বন্ধের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর