× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ২৬ মে ২০২২, বৃহস্পতিবার , ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২৪ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

আলাপন /ভালোবাসার জোয়ারে এবার নোটের মূল্য কমে যাবে- রিয়াজ

বিনোদন

মাজহারুল তামিম
১৮ জানুয়ারি ২০২২, মঙ্গলবার

ঢালিউডের জনপ্রিয় নায়ক রিয়াজ। অসংখ্য সুপারহিট সিনেমা উপহার দিয়েছেন তিনি। আসন্ন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে ইলিয়াস কাঞ্চন-নিপুন প্যানেল থেকে সহ-সভাপতি পদে লড়ছেন এই নায়ক। বর্তমানে তিনি নিয়মিত প্রচারণায় অংশ নিতে সিনেমার আঁতুড়ঘর বিএফডিসিতে আসছেন। প্রচারণা চলাকালীন এক ফাঁকে গতকাল (সোমবার) সন্ধ্যায় কথা হলো রিয়াজের সঙ্গে। বেশ আনন্দ নিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন। আপনাকে নাচতেও দেখলাম। বেশ উপভোগ করছেন এ সময়টা? রিয়াজ মানবজমিনকে বলেন, অবশ্যই।
নির্বাচন মানে আমাদের কাছে আনন্দ।

খুবই আনন্দমুখর পরিবেশে নির্বাচনী প্রচারণায় শিল্পীরা মেতে উঠেছেন। আমাদের প্রিয় দর্শক, ১৮ কোটি মানুষ একটা বিনোদন পাচ্ছেন এই নির্বাচন থেকে। যেটা আমরা সিনেমাতে দিতে ব্যর্থ হয়েছি বিগত দিনে। আশা করছি যে, সামনে সিনেমা দিয়ে আনন্দিত করতে পারবো। ভোটারদের কাছ থেকে কেমন সাড়া পাচ্ছেন? রিয়াজ বলেন, শিল্পীদের কাছ থেকে প্রচুর সাড়া পাচ্ছি। অনেক দিন পর শিল্পীদের উচ্ছ্বাস দেখে বেশ ভালো লাগছে এবং আজকে একটি বিষয় আমাকে চরমভাবে ইমোশনাল করেছে।

আমি আনন্দ-কষ্টে কেঁদে ফেলেছি। আমরা একটি চমৎকার গান আমাদের প্যানেলের পক্ষ থেকে বাজাচ্ছিল। গানটির কথা এমন, নোট দিয়ে ভোট কেনার দিন শেষ। এই গানে একসঙ্গে যখন নাচ্ছিলাম, তখন ৭০ বছরের এক বৃদ্ধ এবং ৬০ বছরের এক বৃদ্ধা গানের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নাচ্ছিলেন। যাদের ভোটাধিকার বাতিল করা হয়েছে। তাদের এই আনন্দ আমাকে আবেগাপ্লুত করেছে। আবেগ ধরে রাখতে পারিনি। এই যে মানুষগুলো, তাদের একটু সম্মান চাওয়া ছিল। সেই সম্মান কেড়ে নেওয়া হয়েছে। দুই-একজন এই দুঃক্ষে মারাও গেছেন। আমি মনে করি, আমাদের যারা ভোটার আছেন, অবশ্যই প্রত্যেকে অনেক বিবেকবান ভোটার।

তারা এই দুঃখী মানুষগুলোর কথা চিন্তা করে আমাদের প্যানেলকে ভোট দেবেন। আসলেই কি নোট দিয়ে ভোট কেনা হয়? এ নায়কের উত্তর- বিগত দিনে এটা অনেকেই চর্চা করেছেন। তবে নোট দিয়ে ভোট কেনার দিন শেষ। কারণ আমরা এক অদ্ভূত জাগরণ দেখতে পাচ্ছি চলচ্চিত্র শিল্পীদের মাঝে। আমার ধারণা, ভালোবাসার জোয়ারে এবার শিল্পী সমিতির নির্বাচনে নোটের মূল্য কমে যাবে। আপনাদের প্যানেলের লক্ষ্য কী? জয়ী হলে কী করবেন শিল্পীদের জন্য? রিয়াজ বলেন, আমরা আসলে কেউ নেতা হতে চাই না।

প্রথমত আমরা অভিনেতা। আমরা কাজ করতে এসেছি। সেই কাজটি আমরা সবাই মিলে করতে চাই। কাউকে বাদ দিতে চাই না। শিল্পীদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি যাতে না হয় সেভাবে সব কিছু পরিচালনা করা হবে। সবার সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে চলাটাই প্রধান লক্ষ্য। প্রত্যাশা রাখছি আগামী দিনে চমৎকার চমৎকার সিনেমা উপহার দিতে পারবো।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
অন্যান্য খবর