× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ১৭ মে ২০২২, মঙ্গলবার , ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৫ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

ভাগ্নে শাকিলকে পিএস নিয়োগ দিলেন এমপি নূর মোহাম্মদ

দেশ বিদেশ

স্টাফ রিপোর্টার, কিশোরগঞ্জ থেকে
১৯ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার

আমজাদ হোসেন লিটনকে অব্যাহতি দেয়ার ৩ দিন পর ব্যক্তিগত সহকারী কাম-কম্পিউটার অপারেটর পদে ভাগ্নে জাহাঙ্গীর আকবর শাকিলকে নিয়োগ দিয়েছেন কিশোরগঞ্জ-২ (কটিয়াদী-পাকুন্দিয়া) আসনের সংসদ সদস্য নূর মোহাম্মদ। গত ১৬ই জানুয়ারি সংসদ সদস্য নূর মোহাম্মদ স্বাক্ষরিত এক পত্রে শাকিলকে নিয়োগ দেয়া হয়।

এর আগে গত ১২ই জানুয়ারি সংসদ সদস্য নূর মোহাম্মদ স্বাক্ষরিত এক পত্রের মাধ্যমে আমজাদ হোসেন লিটনকে অব্যাহতি দেয়া হয়। নতুন পিএস হিসেবে নিয়োগ পাওয়া জাহাঙ্গীর আকবর শাকিল সংসদ সদস্য নূর মোহাম্মদের আপন ভাগ্নে। তিনি পাকুন্দিয়া উপজেলার জাঙ্গালিয়া ইউনিয়নের কাজীহাটি গ্রামের মো. আলী আকবরের ছেলে। তার মায়ের নাম জাহানারা বেগম। মার্কেটিংয়ে অনার্স ডিগ্রিধারী জাহাঙ্গীর আকবর শাকিল ব্লগ ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখালেখির সঙ্গে যুক্ত। তিনি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এটিএন নিউজ-এ প্রোডাকশন এক্সিকিউটিভ ও প্রথম আলো জবস-এ কাজ করেছেন। সংসদ সদস্য নূর মোহাম্মদ যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব থাকাকালে কটিয়াদী উপজেলার মানিকখালীতে মানিকখালী টেকনিক্যাল ট্রেনিং সেন্টার প্রতিষ্ঠা করলে সেটির প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন জাহাঙ্গীর আকবর শাকিল।
তিনি কিশোরগঞ্জের ঐতিহ্যবাহী শিশু-কিশোর সংগঠন ময়ূখ খেলাঘর আসরের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালনসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক কর্মকাণ্ডে দীর্ঘদিন ধরে জড়িত রয়েছেন। তিনি টেলিভিশন ও অন্যান্য মাধ্যমে উপস্থাপনা ও ভয়েজ আর্টিস্ট হিসেবেও কাজ করেছেন। এ ছাড়া করোনাকালীন বিগত সময়ে ‘আমরা করবো জয় কোভিড-১৯’-এর মাধ্যমে কিশোরগঞ্জে ব্যাপক ত্রাণ সহায়তা ও সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করেছেন। ২০১৭ সালে সাবেক আইজিপি, রাষ্টদূত ও সচিব নূর মোহাম্মদ রাজনীতির মাঠে নামলে তার একজন কর্মী হিসেবে জাহাঙ্গীর আকবর শাকিল মাঠে-ময়দানে কাজ করেন।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
শহীদ
১৯ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার, ৯:৩৬

মামা-ভাগিনা!

অন্যান্য খবর