× প্রচ্ছদ অনলাইনপ্রথম পাতাশেষের পাতাখেলাবিনোদনএক্সক্লুসিভভারতবিশ্বজমিনবাংলারজমিনদেশ বিদেশশিক্ষাঙ্গনরকমারিমত-মতান্তরবই থেকে নেয়া তথ্য প্রযুক্তি শরীর ও মন চলতে ফিরতে কলকাতা কথকতাসেরা চিঠিইতিহাস থেকেঅর্থনীতি
ঢাকা, ১৬ মে ২০২২, সোমবার , ২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ১৪ শওয়াল ১৪৪৩ হিঃ

৭ম মেধাতালিকাতেও যবিপ্রবিতে আসন খালি ৪০ শতাংশ

শিক্ষাঙ্গন

যবিপ্রবি সংবাদদাতা
(৩ মাস আগে) জানুয়ারি ১৯, ২০২২, বুধবার, ১:৪৩ অপরাহ্ন

গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষায় যাওয়া যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (যবিপ্রবি) ২০২১-২২ সেশনের ভর্তি প্রক্রিয়া শুরু হয়েছিল গত ১৫ই ডিসেম্বর থেকে। কিন্তু ১ মাসেরও বেশি সময় গড়ালেও আশানুরূপ শিক্ষার্থী ভর্তি হয়নি বেশিরভাগ অনুষদগুলোতে। যবিপ্রবিতে মোট ৯৬০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ৫৮১ জন শিক্ষার্থী। আসন ফাঁকা রয়েছে ৩৭৯ টি। যা মোট আসনের প্রায় ৪০ শতাংশ।

১৮ই জানুয়ারি পর্যন্ত ভর্তির তথ্য অনুযায়ী, প্রকৌশল ও প্রযুক্তি অনুষদে ৫ম মেধাতালিকা পর্যন্ত (মেরিট পজিশন-১৫০০ পর্যন্ত) ২৫০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ১৪৩ জন। আসন ফাঁকা রয়েছে ১০৭ টি। জীববিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদে ৬ষ্ঠ মেধা তালিকা পর্যন্ত (মেরিট পজিশন- ৮৩৭ পর্যন্ত) ১৬০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ৫১ জন। আসন ফাঁকা রয়েছে ১০৯ টি।
ফলিত বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি অনুষদে ৬ষ্ঠ মেধা তালিকা পর্যন্ত (মেরিট পজিশন- ১১০০ পর্যন্ত) ১৫০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ৭৭ জন। আসন ফাঁকা রয়েছে ৭৩ টি। বিজ্ঞান অনুষদে ৭ম মেধা তালিকা পর্যন্ত (মেরিট পজিশন- ৯১৮) ১২০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ৮১ জন। আসন ফাঁকা রয়েছে ৩৯ টি। কলা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদে ৭ম মেধা তালিকা পর্যন্ত ( মেরিট পজিশন- ১০৫) ৪০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ৩৪ জন। আসন ফাঁকা রয়েছে ০৬ টি। স্বাস্থ্য বিজ্ঞান অনুষদে ২য় মেধা তালিকা পর্যন্ত (মেরিট পজিশন- ১৫০) ৪০ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ২৯ জন। আসন ফাঁকা রয়েছে ১১ টি। ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদে ৭ম মেধা তালিকা পর্যন্ত (মানবিক শাখা, মেরিট পজিশন- ৬২৮) ১৩৬ আসনের বিপরীতে ভর্তি হয়েছে ১১২ জন। আসন ফাঁকা রয়েছে ২৪ টি।

এত বেশি আসন ফাঁকা থাকার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডিন’স কমিটির আহ্বায়ক ও ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ডিন ড. মো. মেহেদী হাসান বলেন, শুধু যবিপ্রবিতে আসন ফাঁকা রয়েছে বিষয়টি এমন নয়। এবছর বেশিরভাগ বিশ্ববিদ্যালয়েই এরকম হয়েছে।

মেধা তালিকা থেকে ভর্তির জন্য প্রতিবার বেশি শিক্ষার্থী ডাকলে এ সমস্যার সমাধান হতো কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা এবিষয়ে এখনো সিদ্ধান্ত নেয়নি। তবে এরকম ভাবছি। এবিষয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

উল্লেখ, যবিপ্রবিতে ৯৬০ আসনের বিপরীতে আবেদন করেছিল প্রায় ৫২ হাজার ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী।
অবশ্যই দিতে হবে *
অবশ্যই দিতে হবে *
পাঠকের মতামত
**মন্তব্য সমূহ পাঠকের একান্ত ব্যক্তিগত। এর জন্য সম্পাদক দায়ী নন।
Rayhan
১৯ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার, ৫:২১

নাউজুবিল্লাহ, এই অবস্থা দেশের সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় গুলোর ! পড়াশোনার যা মান ! ডাক্তারিতেও নাকি সিট খালি থাকে !

অন্যান্য খবর